স্কটল্যান্ডের মতো বাংলাদেশকে কাঁদাতে চায় পাপুয়া নিউগিনি

ক্রীড়া প্রতিবেদক ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:১৫ পিএম, ২০ অক্টোবর ২০২১

দেখতে দেখতে শেষের পথে চলতি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রথম পর্বের খেলা। বৃহস্পতিবার বি গ্রুপের প্রথম রাউন্ডের শেষ দিনের ম্যাচে মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ-পাপুয়া নিউগিনি ও স্কটল্যান্ড-ওমান। এখনও নিশ্চিত হয়নি এই গ্রুপ থেকে কোন দুই দল যাচ্ছে সুপার টুয়েলভে।

গ্রুপের প্রথম দুই দিনের ম্যাচ শেষে ৪ পয়েন্ট নিয়ে সবার ওপরে স্কটল্যান্ড, দুই হারে সবার নিচে পাপুয়া নিউগিনি। সমান একটি করে ম্যাচ জিতেছে ওমান ও বাংলাদেশ। নেট রান রেটে এগিয়ে থাকায় দুই নম্বরে ওমান আর তিনে বাংলাদেশ।

বৃহস্পতিবার শেষ দিনের ফলাফলের ওপর নির্ভর করছে সুপার টুয়েলভের দুই দলের নাম। তবে এখন কাগজে কলমে সবার নিচে থাকা পাপুয়া নিউগিনিরও সম্ভাবনা রয়েছে সুপার টুয়েলভে যাওয়ার। শেষ ম্যাচে বাংলাদেশকে বড় ব্যবধানে হারানোর পর তাদের অপেক্ষা করতে হবে ওমানের বড় পরাজয়ের।

এই সমীকরণের দ্বিতীয় শর্তটি পাপুয়া নিউগিনির নিজেদের হাতে নেই। তবে নিজেদের ম্যাচে জেতার সুযোগ তাদের নিজেদের হাতেই থাকছে। আর সেটিই করতে চাইছেন পাপুয়া নিউগিনির তারকা ব্যাটার চার্লস আমিনি। স্কটল্যান্ড যেমন বাংলাদেশকে হারিয়ে অঘটন ঘটিয়েছে, তারই পুনরাবৃত্তি ঘটাতে চান আমিনি।

ম্যাচের আগেরদিন সংবাদ সম্মেলনে আমিনি বলেছেন, ‘এটা আমাদের জন্য বড় সুযোগ। বিশ্বের অন্যতম সেরা টি-টোয়েন্টি দলের বিপক্ষে এটা আমাদের প্রথম দলগত পরীক্ষা। তারা প্রথম ম্যাচ হেরেছে, তবু এখনও তারা অনেক ভালো দল।’

তিনি আরও যোগ করেন, ‘আমরা নিজেদের চেষ্টায় গর্বিত। প্রথম দুই ম্যাচ হেরেছি। তবে আমরা আশাবাদী যে এখনও আমাদের সুযোগ আছে। প্রথম ম্যাচে স্কটল্যান্ড একটা অঘটন ঘটিয়েছে। আমরাও প্রায় নিশ্চিত যে, একই ঘটনা ঘটাতে পারবো আমরা।’

এসময় নিজেদের সুপার টুয়েলভের সম্ভাবনার ব্যাপারে আমিনি বলেন, ‘আমার মতে, আমাদের প্রথমে ম্যাচটি জেতার চেষ্টা করতে হবে। বিশ্বকাপে একটি ম্যাচ জিততে পারলেও সেটি ইতিহাস হয়ে যাবে। এরপর কী হবে সেটা আমাদের নিয়ন্ত্রণে নেই। আমাদের কোনো সুযোগ থাকলে সেটা অবশ্যই চেষ্টা করবো।’

এসএএস/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]