যে কেউ ভারতকে হারিয়ে দিতে পারে: নাসের হুসেইন

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:২৫ পিএম, ২৩ অক্টোবর ২০২১

২০১৩ সালে মহেন্দ্র সিং ধোনির নেতৃত্বে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি জয়ই ভারতের সর্বশেষ আইসিসি আয়োজিত যে কোনো টুর্নামেন্ট জয়। এরপর থেকে বৈশ্বিক টুর্নামেন্টের শিরোপা যেন ভারতের কাছে হয়ে গেছে ‘সোনার হরিণ’।

নকআউট পর্বে বারবার হোঁচট খাওয়াটাকেই এবারের বিশ্বকাপে ভারতের শঙ্কার জায়গা হিসেবে দেখছেন ইংল্যান্ডের সাবেক অধিনায়ক এবং ক্রিকেট বিশ্লেষক, ধারাভাষ্যকার নাসের হুসেইন।

বিশ্বকাপ সামনে রেখে ভারতের প্রস্তুতি খুব ভালোই হয়েছে। অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দুটো প্রস্তুতি ম্যাচেই প্রতিপক্ষকে উড়িয়ে সুপার টুয়েলভের আগে বার্তা দিয়ে রেখেছেন বিরাট কোহলিরা।

ফেবারিট মেনেই ভারতকে সতর্কবাণী শুনিয়ে স্কাই স্পোর্টসকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে নাসের বলেন, ‘ফরম্যাটের কারণে তাদের পুরোপুরি ফেবারিট বলা যাচ্ছে না। কারও ৭০ থেকে ৮০ রান অথবা তিনটি ভালো ডেলিভারিতেই ম্যাচ ঘুরে যেতে পারে। তাই নকআউট পর্বে যে কোনো দল ভারতকে হারিয়ে দিতে পারে।’

টপ অর্ডার ভালো হলেও মিডল অর্ডার ভারতকে ভোগাতে পারে বলে জানিয়েছেন নাসের। এ ব্যাপারে ইংলিশ ধারাভাষ্যকারের মন্তব্য, ‘বিরাট কোহলি, রোহিত শর্মা ও লোকেশ রাহুলদের মতো সেরা টপ-অর্ডার ব্যাটসম্যান ভারতের থাকলেও মিডল অর্ডারে দুর্বলতা রয়েছে। নকআউট অথবা ফাইনালে গেলে ৩০ রানে ৩ উইকেট পড়ে যেতেই পারে। বিপদের মুহূর্তে মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানদের হাল ধরাটা ভারতের জন্য একটু কঠিনই হবে।’

২০১৩ থেকে ২০২১- এই আট বছরে আইসিসি ইভেন্ট হয়েছে ৬টি। সবগুলোতেই নকআউট পর্ব খেলা একমাত্র দল হচ্ছে ভারত। রানার্সআপ হয়েছে ২০১৪ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ, ২০১৭ চ্যাম্পিয়নস ট্রফি ও ২০২১ বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে।

সেমিফাইনালে বিরাট কোহলিদের যাত্রা থেমে গিয়েছিল ২০১৬ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ, ২০১৫ ও ২০১৯ ওয়ানডে বিশ্বকাপে।

বিকল্প পরিকল্পনার অভাব এবার নকআউট পর্বে ভোগাতে পারে বলে সাবেক ইংলিশ অধিনায়কের শঙ্কা, ‘২০১৯ এর সেমিফাইনালের কথাই ধরুন। লো-স্কোরিং ম্যাচে তাদের ‘প্ল্যান বি’ ছিল না, তাই নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে তারা হেরে গিয়েছিল। এবারও তাদের সঙ্গে তেমন কিছু ঘটতে পারে।’

আইএইচএস/

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]