লিটন সেরা ফিল্ডার, দায় দেওয়ার কিছু নেই: মুশফিক

ক্রীড়া প্রতিবেদক ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১০:০১ পিএম, ২৪ অক্টোবর ২০২১

আগে ব্যাট করে বাংলাদেশ দাঁড় করিয়েছিল ১৭১ রানের সংগ্রহ। জবাবে দ্বিতীয় ইনিংসের ১২ ওভার শেষে শ্রীলঙ্কার সংগ্রহ দাঁড়ায় ৪ উইকেটে ৯০ রান। অর্থাৎ শেষের আট ওভারে বাকি ছিল আরও ৮২ রান, হাতে ছয় উইকেট। এই সমীকরণের ম্যাচে আর মাত্র এক উইকেট হারিয়ে ৪০ বলেই বাকি রান করে ফেলেছে শ্রীলঙ্কা।

তাদের জয়টি সহজ হয়েছে লিটন দাসের জোড়া ক্যাচ মিসের কারণে। ইনিংসের ১৩তম ওভারে আফিফ হোসেন ধ্রুবর বলে প্রথমে ভানুকা রাজাপাকশের ক্যাচ ছাড়েন লিটন। পরে ১৫তম ওভারের তৃতীয় বলে মোস্তাফিজুর রহমানের বলে চারিথ আসালাঙ্কাকে জীবন দেন লিটন।

জীবন পাওয়া এ দুই ব্যাটসম্যানই শেষ করে দিয়েছেন ম্যাচ। তাদের পঞ্চম উইকেট জুটিতে আসে মাত্র ৮.৪ ওভারে ৮৬ রান। আসালাঙ্কা অপরাজিত থাকেন ৪৯ বলে ৮০ রান করে আর ভানুকা খেলেন ৩১ বলে ৫৩ রানের ইনিংস। এ দুজনই মূলত জিতিয়েছেন লঙ্কানদের।

ফলে স্বাভাবিকভাবেই ম্যাচ হারের বড় দায় বর্তায় লিটনের কাঁধে। তবে ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে আসা মুশফিকুর রহিম এমনটা মানতে নারাজ। লিটন দলের অন্যতম সেরা ফিল্ডার বিধায় তাকে এখানে দায় দেওয়ার কিছু নেই বলেই মনে করেন দলের সিনিয়র ব্যাটার মুশফিক।

তিনি বলেছেন, ‘আমি বলবো, দায় দেয়ার কিছু নেই। আপনি যত রানই করেন না কেন, যেই ম্যাচই খেলেন না কেন; ছোটখাটো কিছু ভুল থাকে, অনেক কিছু ইতিবাচক থাকে। আমার কাছে মনে হয় যে, যে ক্যাচ দুইটা ছুটেছে সেগুলো খুবই গুরুত্বপূর্ণ ছিলো। লিটন খুবই ভালো ফিল্ডার।’

মুশফিক আরও যোগ করেন, ‘আমার হাত থেকে ছুটলে হয়তো... কারণ আমি ঐ মানের ফিল্ডার না। কিন্তু (লিটন) আমাদের অন্যতম সেরা ফিল্ডার। ঐ সময়টায় (ক্যাচ দুটো) খুবই গুরুত্বপূর্ণ ছিলো। দুইটা বাঁহাতি ব্যাটার খুবই ভালো ব্যাট করছিলো, একটা পার্টনারশিপ হয়ে গিয়েছিল। আমাদের জন্য ব্রেক থ্রুটা খুব দরকার ছিলো।’

এসময় ম্যাচে বাংলাদেশের হারের কারণ বিশ্লেষণ করতে গিয়ে মুশফিক বলেন, ‘শারজাহর উইকেটে শেষ কয়েকটা ম্যাচে যেমন দেখেছি, ১৪০-১৫০ করলেই ম্যাচ জেতার মতো স্কোর। কিন্তু আমি ব্যাটিং করে দেখেছি আজকের উইকেট বেশ ভালো ছিলো। আবার মাঠের এক পাশ ছোট ছিলো। আমরা জানতাম যে, ১৭০ আসলে জেতার স্কোর না কিন্তু আমরা যদি শুরুর ৫-৬টা ওভার ভালো করতে পারি এবং সুযোগ পেলে সেগুলো নিতে পারি, তাহলে আমরা ম্যাচে থাকতে পারবো।’

তার শেষ কথা, ‘যদিও আমরা শুরুতে উইকেট নিয়েছিলাম কিন্তু ওরা পাওয়ার প্লে বেশ ভালো ব্যবহার করেছে। এরপর সাকিবের ঐ ওভারে (নবম ওভারে জোড়া উইকেট) মোমেন্টার আবার কাছে এসেছিল। কিন্তু শেষে যেহেতু সেট ব্যাটার ছিল, তারা খুব ভালোভাবে কাজে লাগিয়েছে। সবমিলিয়ে আমি বলবো, দায় ঠিক না। আমরা ছোটখাটো কিছু ভুল করেছি। সে কারণে ম্যাচটা জিততে পারিনি।’

এসএএস/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]