আমিরকে মনে করিয়ে ইতিহাসের নায়ক আফ্রিদি

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:৪২ এএম, ২৫ অক্টোবর ২০২১

২০১৭ সালের চ্যাম্পিয়নস ট্রফির ফাইনালের কথা মনে আছে? ওভালে সেদিন ভারতের টপ অর্ডারকে একাই ধ্বসিয়ে দিয়েছিলেন মোহাম্মদ আমির। দুবাইয়ে আজ শাহিন শাহ আফ্রিদি যেন ওভালের সেই ম্যাচের অনুপ্রেরণা নিয়েই খেলতে নেমেছিলেন। শাহিনের দুর্দান্ত বোলিংয়ে ভারতকে ১০ উইকেটে হারিয়ে ইতিহাস গড়ল পাকিস্তান।

দুবাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আজ টস জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় পাকিস্তান। বাবরের সিদ্ধান্তকে সঠিক প্রমাণ করতে শাহিন শাহ আফ্রিদি সময় নেন মাত্র চার বল। ইনিংসের চতুর্থ বলে দুর্দান্ত ইয়র্কারে রোহিত শর্মাকে গোল্ডেন ডাক খাইয়ে ড্রেসিংরুমে পাঠান শাহিন।

রোহিতের ধাক্কা সামলাতে না সামলাতেই আবারও শাহিন ভেল্কি। তৃতীয় ওভারের প্রথম বলেই গুড লেংথে পিচ করিয়ে লোকেশ রাহুলকে (৮ বলে ৩ রান) বোল্ড করেন এই বাঁ-হাতি পেসার।

এরপর শেষের দিকে শাহিন দেন সবচেয়ে বড় চমক। যে বিরাট কোহলি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে পাকিস্তানের বিপক্ষে 'চীনের মহাপ্রাচীর' বনে যান, আজ সেই প্রাচীর ভেঙে দেন শাহিন। পাকিস্তানের বিপক্ষে সব সময় অজেয় থাকা কোহলি আজ হলেন পরাজিত।

ভারতীয় অধিনায়ককে উইকেটরক্ষক মোহাম্মদ রিজওয়ানের ফাঁদে ফেলে নিজের তৃতীয় উইকেট নেন শাহিন আফ্রিদি। তার দুর্দান্ত বোলিংয়ে (৪-০-৩১-৩) নির্ধারিত ২০ ওভারে ভারতের ইনিংস দাঁড়ায় ৭ উইকেটে ১৫১।

শাহিন আফ্রিদির স্পেলকে যথাযোগ্য সম্মান দিয়েছেন রিজওয়ান-বাবর। দুই ওপেনারের অপরাজিত ফিফটিতে ১৩ বল হাতে রেখে কোনো উইকেট না হারিয়ে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে প্রথমবারের মতো ভারতকে পরাজয়ের স্বাদ উপহার দেয় পাকিস্তান। সে সঙ্গে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচের ম্যাচ সেরার পুরস্কারও জিতে নেন শাহিন আফ্রিদি।

আইএইচএস/

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]