ব্যাটারদের কিসের এত তাড়া!

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০:০১ এএম, ২৬ অক্টোবর ২০২১

৩৯ ,৪৪, ৫৫, ৬০, ৬০ সংখ্যাগুলো দেখে কি চমকে যাচ্ছেন? ভাবছেন এগুলো কি কারও পরীক্ষায় পাওয়া নম্বর নাকি! না, আসল ব্যাপারটা তা নয়। উপরের সংখ্যাগুলো হচ্ছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ইতিহাসের সর্বনিম্ন পাঁচ ইনিংস। যার তিনটির ঘটনা আবার চলতি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে!

আসুন এক নজরে দেখে নেওয়া যাক বিশ্বকাপের সর্বনিম্ন পাঁচটি ইনিংস-

৩৯, নেদারল্যান্ডস বনাম শ্রীলঙ্কা, চট্টগ্রাম, ২৪ মার্চ ২০১৪
চট্টগ্রামে নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে টসে জিতে সেদিন ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় শ্রীলঙ্কা। অধিনায়ক লাসিথ মালিঙ্গার সিদ্ধান্তকে ভুল প্রমাণ করেননি সতীর্থরা। অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউজ (৪-০-১৬-৩) ও অজন্থা মেন্ডিসের (২.৩-০-১২-৩) দুর্দান্ত বোলিংয়ে ১০.৩ ওভারে ৩৯ রানেই গুটিয়ে যায় ডাচরা।

৪৪, নেদারল্যান্ডস বনাম শ্রীলঙ্কা, শারজা, ২২ অক্টোবর ২০২১
সাজঘরে ফেরার তাড়া সবচেয়ে বেশি যেন নেদারল্যান্ডস ব্যাটারদের। তা না হলে, বিশ্বকাপের দ্বিতীয় সর্বনিম্ন স্কোরও তাদের হয়! চলতি বিশ্বকাপে ডাচরা আবার ডুবেছে সেই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে। প্রথম রাউন্ডের ম্যাচে শারজায় টস জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় শ্রীলঙ্কা। বোলিংয়ে শুরুতেই নেদারল্যান্ডসকে চেপে ধরেন দুই স্পিনার মহেশ থিকশানা (১-০-৩-২) ও ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা (৩-০-৯-৩)। সঙ্গে লাহিরু কুমারার এক ওভারে তিন উইকেট (৩-১-৭-৩)। তাতে ১০ ওভারেই ডাচরা অলআউট হয়ে যায় ৪৪ রানে।

৫৫, ওয়েস্ট ইন্ডিজ বনাম ইংল্যান্ড, দুবাই, ২৩ অক্টোবর,২০২১
শারজায় ‘লঙ্কাকাণ্ডের’ ২৪ ঘণ্টাও পেরোয়নি। তার আগেই ৪৭ কিলোমিটার দূরে দুবাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে দর্শকরা দেখল ব্রিটিশ ভেলকির। এ ম্যাচেও টস জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন ইংলিশ দলপতি ইয়ন মরগ্যান৷ শুরু থেকেই ওয়েস্ট ইন্ডিজের টুটি চেপে ধরেছিলেন ইংলিশ বোলাররা। ফিল্ডারদের কানে যেন পাঁচ বছর আগে ইডেনে ইয়ান বিশপের ‘কার্লোস ব্রাথওয়েট, রিমেম্বার দ্য নেইম’ বারবার ধ্বনিত হচ্ছিল।

সেবারের শিরোপা হারানোর কষ্টে উইন্ডিজ ব্যাটারদের কোনোরকম ছাড় দিতে নারাজ ছিলেন ইংলিশ ক্রিকেটাররা। ফলাফল দুই স্পিনার আদিল রশিদ (২.২-০-২-৪) ও মঈন আলির ঘূর্ণি যাদুতে (৪-১-১৭-২) ১৪.২ ওভারে ৫৫ রানেই থেমে যায় ক্যারিবিয়ানদের রানের চাকা।

৬০, নিউজিল্যান্ড বনাম শ্রীলঙ্কা, চট্টগ্রাম, ৩১ মার্চ ২০১৪
সেই চট্টগ্রামে ২০১৪ বিশ্বকাপেই প্রতিপক্ষকে আরেকবার লজ্জা উপহার দিয়েছিল শ্রীলঙ্কা। লঙ্কানদের দেওয়া ১২০ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে রঙ্গনা হেরাথের বাঁহাতের ভেল্কিতে শুরু থেকেই ধুঁকতে থাকে কিউইরা। ব্রেন্ডন ম্যাককালাম, রস টেলররা সেদিন অসহায় আত্মসমর্পণ করেন হেরাথের সামনে। তার ক্যারিয়ারসেরা বোলিংয়ে (৩.৩-২-৩-৫) ১৫.৩ ওভারে শ্রীলঙ্কা ৬০ রানেই থামিয়ে দেয় কিউইদের ইনিংস।

৬০, স্কটল্যান্ড বনাম আফগানিস্তান, শারজাহ, ২৫ অক্টোবর, ২০২১
ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ব্যাটিং লাইনআপ ধ্বসের ৪৮ ঘণ্টা পর একই পথের পথিক স্কটল্যান্ড। এবারের ভেন্যু হচ্ছে তিনদিন আগে ঘটে যাওয়া লঙ্কাকাণ্ডের সাক্ষী শারজাহ ক্রিকেট স্টেডিয়াম। গতকাল আফগানিস্তানের দেওয়া ১৯১ রানের লক্ষ্যে দুই স্কটিশ ওপেনার কাইল কোয়েটজার ও জর্জ মুনসি মিলে ৩ ওভারে ২৭ রান করে ভালোই এগোচ্ছিলেন। তবে চতুর্থ ওভারে মুজিবুর রহমান আক্রমণে এসে ১ রান খরচায় ৩ উইকেট নিলে ম্যাচের ভোল পাল্টাতে শুরু করে।

সপ্তম ওভারে রশিদ খান বোলিংয়ে আসার আগেই স্কটিশদের অর্ধেক ব্যাটসম্যান প্যাভিলিয়নে। রশিদের বোলিংয়ে আসার পরই স্কটিশদের যেন শ্বাসরোধ হওয়া শুরু করে। মুজিবের ফাইফারের (৪-০-২০-৫) সঙ্গে রশিদের লেগস্পিন বিষে (২.২-০-৯-৪) কাতরাতে থাকা স্কটিশরা ১০.২ ওভারেই গুটিয়ে যায় ৬০ রানে।

এসএস/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]