এবার সাংবাদিকদের সঙ্গে তর্কে জড়ালেন হরভজন

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৫:১১ পিএম, ২৮ অক্টোবর ২০২১

‘কেহ কারে নাহি ছাড়ে, সমানে সমান’; ভারত-পাকিস্তান ম্যাচের ব্যাপারটা যেন এমনই। গত রোববার খেলা শেষ হলেও, রেশ রয়ে গেছে এখনও। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম এখনও উত্তপ্ত।

পাকিস্তানের বাঁহাতি পেসার মোহাম্মদ আমিরের পর এবার এক পাকিস্তানি সাংবাদিকের সঙ্গেও তর্কে জড়ালেন ভারতের সাবেক অফস্পিনার হরভজন সিং। আমিরের সঙ্গে টুইটারে হরভজনের তর্কযুদ্ধের পর সাংবাদিকরা পাকিস্তানি বাঁহাতি পেসারের পাশে দাঁড়িয়েছেন।

এই ব্যাপারটি যেন হজম করতে পারলেন না হরভজন। উল্টো আমিরকে নিয়ে রমিজ রাজার পুরোনো ভিডিও নতুন করে সামনে আনলেন ভারতীয় অফস্পিনার। যেখানে রমিজ বলেছিলেন, ‘সে (আমির) কখনও আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরতে পারবে না। পাকিস্তান ক্রিকেট তার জন্য অপমানিত হয়েছে।’

ঘটনার সূত্রপাত ইকরা নাসির নামে এক সাংবাদিকের টুইট থেকে। ভারত-পাকিস্তানের একটি ম্যাচে ইউনিস খানের কাছে ছক্কা হজম করেছিলেন হরভজন। সেই ভিডিও আপলোড দিয়ে হরভজনকে খোঁচা মেরে ইকরা লিখেন, ‘দেখে নিন উচ্চ শিক্ষিত ক্রিকেটার।’

এই ভিডিও ও টুইটবার্তা দেখে নিজেকে সংযত করতে পারেননি হরভজন। তিনি সেই টুইটের রিটুইট করে লিখেন, ‘এসব অশিক্ষিত সাংবাদিকদের মুখ কি শুধু মলত্যাগ করার জন্যই খোলা হয়? সরে যাও নকল সাংবাদিক।’

হরভজনের এমন কথা আবার মানতে পারেননি পাকিস্তানের আরেক সাংবাদিক ইহতিসাম উল হক। তিনি আরেক টুইটবার্তায় লিখেছেন, ‘খুব বড় শত্রু এসেছে, যে কি না মেয়েদেরও ভয় পেয়ে যায়।’

ইহতিসামের জবাব দেয়ার জন্যই রমিজের সেই ভিডিওটি সামনে আনেন হরভজন। ইহতিসাম উল হককে ভিডিওটি দেখার অনুরোধ করে সাবেক ভারতীয় অফস্পিনার লিখেছেন, ‘ক্রিকেটারদের ন্যূনতম সততা থাকা উচিত। ভিডিওটি দেখলে রমিজের সঙ্গে আপনি একমত হবেন।’

উল্লেখ্য, ২০১০ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে লর্ডস টেস্টে মোহাম্মদ আমির, মোহাম্মদ আসিফ, সালমান বাট ফিক্সিং কেলেংকারিতে ধরা পড়েছিলেন। সেই ম্যাচে বাটের নির্দেশে আমির ও আসিফ ইচ্ছাকৃত নো বল করেন। পরে এই তিনজনকেই জেল খাটতে হয়।

এসএএস/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]