মুশফিক-লিটনকেই পূর্ণ কৃতিত্ব দিলেন হাসান আলি

ক্রীড়া প্রতিবেদক ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:৫৯ পিএম, ২৬ নভেম্বর ২০২১

শুক্রবার চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে এবারের বাংলাদেশ সফরে টানা চতুর্থ ম্যাচে টস হেরে আগে ফিল্ডিং পেয়েছে পাকিস্তান। বরাবরের মতো এবারও বল হাতে শুরুটা দারুণ করে সফরকারীরা। ইনিংসের ১৭ ওভারের মধ্যে মাত্র ৪৯ রানেই ৪ উইকেট তুলে নেয় তারা।

তবু দিনের খেলা শেষে চওড়া হাসি বাংলাদেশের সমর্থকদের মুখে। তা হবেই না কেন? ৪৯ রানে ৪ উইকেটের পর যে আর উইকেট হারায়নি বাংলাদেশ। পঞ্চম উইকেটে অবিচ্ছিন্ন জুটিতে ২০৪ রান যোগ করে দিনটি বাংলাদেশের পক্ষে এনেছেন লিটন দাস ও মুশফিকুর রহিম।

টপঅর্ডারের ব্যাটারদের ব্যর্থতার ভিড়ে ১৬তম ওভারে মুশফিক ও ১৭তম ওভারে উইকেটে যান লিটন। এরপর দিনের বাকি ৬৮.৪ ওভার খেলেন দুজন মিলে। ব্যক্তিগত ৬৭ রানের মাথায় লিটন একবার জীবন পান বটে। এছাড়া পুরোটা সময় সাবলীল ব্যাটিং করেছেন মুশফিক ও লিটন।

দ্বিতীয় ও তৃতীয় সেশনে কোনো উইকেটই হারায়নি বাংলাদেশ। দিনের খেলা শেষে ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি করা লিটন ১১৩ এবং অষ্টম সেঞ্চুরির অপেক্ষায় থাকা মুশফিক অপরাজিত রয়েছেন ৮২ রানে। এ দুজনের ব্যাটেই বড় সংগ্রহের আশা বাঁচিয়ে রেখেছে বাংলাদেশ।

প্রথম দিনের খেলা শেষে লিটন-মুশফিকের ব্যাটিংয়ের প্রশংসা করতে ভোলেননি পাকিস্তানের পেসার হাসান আলি। দিনের শুরুতে উইকেট তুলে নেওয়ার নিজেদের পরিকল্পনায় সফল হলেও, লিটন-মুশফিকই যে তাদের হাত থেকে ম্যাচ নিয়ে গেছেন- সেটিও মেনে নেন পাকিস্তানি পেসার।

পিসিবির সরবরাহকৃত ভিডিওবার্তায় হাসান আলি বলেছেন, ‘দেখুন আমাদের পরিকল্পনা ছিল, যদি আগে বোলিং করতে হয় তাহলে শুরু থেকেই উইকেট নেওয়ার চেষ্টা করবো। আমরা এই পরিকল্পনায় সফলও ছিলাম। তবে আমাদের অবশ্যই প্রশংসা করতে হবে, যেভাবে মুশফিক ও লিটন যেভাবে ব্যাটিং করেছেন।’

তিনি আরও যোগ করেন, ‘তারা দুজন আমাদের হাত থেকে ম্যাচটা নিয়ে গেছে। আমার মতে, দুজনই দারুণ ইনিংস খেলেছে। প্রথম সেশনের পর বল ব্যাটে আসা শুরু হয়ে গিয়েছিল। আমরা ব্রেক থ্রু নিতে পারিনি। তবে টেস্ট ক্রিকেট এমনই। আমরা (দ্বিতীয় দিন) সকালে শুরুতেই উইকেট নিতে চেষ্টা করবো।’

এসএএস/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]