ভারতের বিপক্ষে একাই ১০ উইকেট নিলেন ‘ঘরের ছেলে’ এজাজ

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:৪৭ পিএম, ০৪ ডিসেম্বর ২০২১

এতোটা হয়তো কল্পনাও করেননি নিউজিল্যান্ডের ভারতীয় বংশোদ্ভূত বাঁহাতি স্পিনার এজাজ প্যাটেল। স্বাগতিক ভারতের বিপক্ষে প্রথমবারের মতো নিজের জন্মস্থান মুম্বাইয়ে টেস্ট খেলতে নেমে ইতিহাসের পাতায় ঢুকে গেলেন এ কিউই স্পিনার।

ক্রিকেট ইতিহাসের মাত্র তৃতীয় বোলার হিসেবে এক ইনিংসে দশ উইকেট নিলেন এজাজ। ভারতের বিপক্ষে ওয়াংখেড়ে টেস্টের প্রথম ইনিংসে ৪৭.৫ ওভার বোলিং করে ১১৯ রান খরচায় এজাজের শিকার পুরো দশটি উইকেট।

ইংল্যান্ডের জিম লেকার ও ভারতের অনিল কুম্বলের পর তৃতীয় বোলার হিসেবে এ কীর্তি গড়লেন তিনি। ১৯৫৬ সালে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ম্যানচেস্টার টেস্টে ৫৩ রানে ১০ উইকেট নিয়েছিলেন ইংল্যান্ডের অফস্পিনার জিম লেকার।

পরে ১৯৯৯ সালে পাকিস্তানের বিপক্ষে ৭৪ রানে ১০ উইকেট নেন ভারতের লেগস্পিনার অনিল কুম্বলে। চলতি শতকে প্রথম বোলার হিসেবে লেকার-কুম্বলের দলে যোগ দিলেন কিউই বাঁহাতি স্পিনার এজাজ। যিনি হয়তো খেলতে পারতেন ভারতের হয়েই।

Ajaz

শুক্রবার ম্যাচের প্রথমদিন ৪ উইকেট হারিয়ে ২২১ রান করেছিল ভারত। সবকয়টি উইকেটই নিয়েছিলেন এজাজ। আজ (শনিবার) দ্বিতীয় দিন তার ঘূর্ণি ফাঁদে পড়ে আর ১০৪ রান তুলতে বাকি সব উইকেট হারিয়েছে স্বাগতিকরা। আজকের ছয় উইকেটও নিয়েছেন কিউই বাঁহাতি স্পিনার।

দিনের দ্বিতীয় ওভারেই তাণ্ডব শুরু করেন এজাজ। পরপর দুই বলে সাজঘরে পাঠান ঋদ্ধিমান সাহা ও রবিচন্দ্রন অশ্বিনকে। ইনিংসের তৃতীয় ব্যাটার হিসেবে শূন্য রানে আউট হন অশ্বিন। এরপর একে একে মায়াঙ্ক আগারওয়াল, অক্ষর প্যাটেল ও জয়ন্ত যাদবকে আউট করে দশ উইকেটের সম্ভাবনা জাগান এজাজ।

ভারতের ইনিংসের ১১০তম ওভারে মোহাম্মদ সিরাজকে মিড অনে দাঁড়ানো রাচিন রবিন্দ্রর হাতে ক্যাচে পরিণত করেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত এজাজ। সঙ্গে সঙ্গে উল্লাসে মাতে কিউই শিবির। পাশাপাশি ভারতীয় ড্রেসিংরুম থেকেও অভিবাদন জানানো হয় ঘরের ছেলেকে।

এজাজের ইতিহাসগড়া ইনিংসে ভারতকে নিরাপদ সংগ্রহে পৌঁছে দেওয়ার কৃতিত্বটা মায়াঙ্কের। ক্যারিয়ারের চতুর্থ সেঞ্চুরিতে তিনি করেছেন ১৫০ রান। এছাড়া ফিফটি হাঁকিয়ে ৫২ রানে আউট হন অক্ষর। ভারতের ইনিংস থামে ৩২৫ রানে।

এসএএস/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]