বাবরকে ফিরিয়ে উইকেটের খাতা খুললেন খালেদ

ক্রীড়া প্রতিবেদক ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১১:১৯ এএম, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১

ক্যারিয়ারের প্রথম দুই টেস্টে ৬০ ওভার বোলিং করেও উইকেটশূন্য ছিলেন সৈয়দ খালেদ আহমেদ। চলতি ঢাকা টেস্তেও প্রথম নয় ওভারে পাননি উইকেটের দেখা। অবশেষে দশম ওভার করতে এসে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে উইকেটের খাতা খুললেন খালেদ।

তাও যেনতেন উইকেট নয়, বর্তমান বিশ্বের অন্যতম সেরা ব্যাটার বাবর আজমকে ফিরিয়েই নিজের প্রথম উইকেট নিলেন সিলেটের এ ডানহাতি পেসার। খালেদের বলে লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়েছেন পাকিস্তানি অধিনায়ক, সাজঘরে ফিরেছেন ব্যক্তিগত ৭৬ রানে।

এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত পাকিস্তানের সংগ্রহ ৪ উইকেটে ১৯৭ রান। দিনের দ্বিতীয় ওভারে আউট হয়েছে ৫৬ রান করা আজহার। উইকেটে এখন দুই নতুন ব্যাটার ফাওয়াদ আলম ও মোহাম্মদ রিজওয়ান।

ভেজা আউটফিল্ডের কারণে নির্ধারিত সময়ে প্রায় ৮০ মিনিট পর সকাল ১০টা ৫০ মিনিটে শুরু হয়েছে আজকের খেলা। দিনের দশম বলেই আঘাত হেনেছেন এবাদত। উইকেটের পেছনে ক্যাচ বানিয়ে সাজঘরে পাঠিয়ে দিয়েছেন অভিজ্ঞ ব্যাটার আজহার আলিকে।

দ্বিতীয় দিন শেষে পাকিস্তানের সংগ্রহ ছিল ৬৩.২ ওভারে ২ উইকেটে ১৮৮ রান। তৃতীয় দিন মাঠে গড়ায়নি একটি বলও। আজ খালেদের অসমাপ্ত ওভার দিয়ে শুরু হয় চতুর্থ দিনের খেলা। ওভারের বাকি থাকা চার বলে কোনো রান দেননি খালেদ।

পরের ওভারে স্বাভাবিকভাবেই আক্রমণে আনা হয় আরেক পেসার এবাদতকে। তার ওভারের দ্বিতীয় বলে দিনের প্রথম রান নেন বাবর। পরের বলেই স্কয়ার লেগ দিয়ে বাউন্ডারি হাঁকান আজহার।

ওভারের শেষ বলে আবার বাউন্ডারির আশায় পুল করেন পাকিস্তানের তিন নম্বর ব্যাটার। কিন্তু বল উঠে যায় আকাশে। উইকেটের পেছনে দাঁড়িয়ে সহজেই সেটি গ্লাভসবন্দী করেন লিটন। ফলে বিদায়ঘণ্টা বেজে যায় ৫৬ রান করা আজহারের।

দুই ওভার পর আরেক সেট ব্যাটার বাবরের বিদায়ঘণ্টা বাজান খালেদ। ইনিংসের ৬৮তম ওভারটিতে অসম বাউন্সে বাবরকে বারবার অস্বস্তিতে ফেলছিলেন খালেদ। ওভারের পঞ্চম বলে তার ভেতরে ঢোকা ডেলিভারি আঘাত হানে বাবরের প্যাডে, আঙুল তুলে দেন আম্পায়ার।

বল লেগস্ট্যাম্প দিয়ে বেরিয়ে যেতে পারে ভেবে রিভিউ নিয়েছিলেন পাকিস্তানি অধিনায়ক। কিন্তু রিপ্লেতে দেখা যায় লেগস্ট্যাম্পেই আঘাত হানতো বল। তাই বদলায়নি সিদ্ধান্ত, ৭৬ রানে সাজঘরে ফিরতে হয় বাবরকে। যা কি না খালেদের ক্যারিয়ারের প্রথম উইকেট।

এসএএস/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]