১৩৪ বছরের পুরোনো রেকর্ড ভাঙলেন ওয়ার্নার!

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৫:৩৮ পিএম, ১৪ জানুয়ারি ২০২২

রেকর্ড যে সবসময় আনন্দ দেবে তা কিন্তু নয়। এ নিয়ে সংশয় থাকলে অস্ট্রেলিয়ার তারকা ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নারকে জিজ্ঞেস করা যেতে পারে। যিনি আজ (শুক্রবার) ভেঙেছেন ১৩৪ বছরের পুরোনো এক রেকর্ড। কিন্তু এতে খুশি হওয়ার কোনো সুযোগ নেই ওয়ার্নারের।

শুক্রবার হোবার্টে শুরু হয়েছে অ্যাশেজ সিরিজের পঞ্চম ও শেষ ম্যাচ। গোলাপি বলের দিবারাত্রির এই ম্যাচে টস হেরে আগে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ পেয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। ইনিংস সূচনা করতে নেমে তাদের শুরু হয়েছে যাচ্ছেতাই। মাত্র ১১ রানেই সাজঘরে ফিরে গেছেন তিন ব্যাটার।

ইনিংসের ষষ্ঠ ওভারের শেষ বলে প্রথম ব্যাটার হিসেবে আউট হন ওয়ার্নার। তখন দলের সংগ্রহ মাত্র ৩ রান। আর ওয়ার্নার? তিনি ২১ বল খেলেও খুলতে পারেননি রানের খাতা। পরে মুখোমুখি ২২তম বলে দ্বিতীয় স্লিপে জ্যাক ক্রলির হাতে ক্যাচ দিয়ে ওলি রবিনসনের প্রথম শিকারে পরিণত হন।

আর এতেই ভেঙে যায় ১৩৪ বছরের পুরোনো এক রেকর্ড। সেটি হলো ঐতিহ্যবাহী অ্যাশেজ সিরিজে অস্ট্রেলিয়ার ওপেনারদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি বল খেলে শূন্য রানে আউট হওয়ার বিব্রতকর রেকর্ড। এতদিন ধরে রেকর্ডটি ছিল স্যামি জোন্সের। তিনি ১৮৮৮ সালের ফেব্রুয়ারিতে ২০ বলে করেছিলেন শূন্য রান।

অবশ্য শুধু অস্ট্রেলিয়া বাদ দিয়ে দুই দল মিলে হিসেব করলে এই রেকর্ডে থাকছে না ওয়ার্নারের নাম। ১৯৭১ সালের অ্যাশেজে সিডনি টেস্টে ২৯ বল খেলে ০ রানে আউট হয়েছিলেন ইংল্যান্ডের ওপেনার ব্রায়ান লাকহার্স্ট। অ্যাশেজ সিরিজে ওপেনারদের মধ্যে এটিই সবচেয়ে বেশি বল খেলে শূন্য রানে আউটের রেকর্ড।

এছাড়া অ্যাশেজের গন্ডি পেরিয়ে বিশ্ব ক্রিকেটের সব দেশের ওপেনারদের হিসেব করলে টেস্ট ক্রিকেটে সবচেয়ে বেশি বল খেলে শূন্য রানে আউট হওয়ার রেকর্ড নিউজিল্যান্ডের ড্যারেন ম্যারির। তিনি ১৯৯৫ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৩৯ বল খেলেও রানের খাতা খুলতে পারেননি।

আর ওপেনার বাদ দিয়ে যেকোনো পজিশনের হিসেবে করলে এই রেকর্ডের মালিক নিউজিল্যান্ডের পেসার জিওফ অ্যালট। তিনি ১৯৯৯ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ৭৭ বল খেলে ০ রানে আউট হন। সেদিন ক্রিস হ্যারিসের সঙ্গে শেষ উইকেটে ২৭.২ ওভারে ৩২ রানের জুটি গড়েছিলেন অ্যালট।

এসএএস/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]