ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়ার ‘পার্টি’ থামাতে হোটেলে এলো পুলিশ

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০২:৩৪ পিএম, ১৮ জানুয়ারি ২০২২

স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়ার কাছে এবারের অ্যাশেজে পাত্তাই পায়নি ইংল্যান্ড। সফরকারীদের গুঁড়িয়ে ৪-০ ব্যবধানে সিরিজ জিতেছে অস্ট্রেলিয়া। তবে সিরিজ শেষে রীতি অনুযায়ী দুই দল মিলে পার্টি ঠিকই করেছে। কিন্তু সেটিতে আবার হানা দিয়েছে পুলিশ।

অ্যাশেজের শেষ ম্যাচ খেলতে হোবার্টে গিয়েছিল দুই দল। সেখানে ক্রাউন প্লাজা হোটেলে ওঠে তারা। জৈব সুরক্ষা বলয় ও করোনা প্রটোকলের কারণে হোটেলের একটি পাশ পুরোপুরি বরাদ্দ ছিল শুধু দুই দলের জন্য। তবে বাকি জায়গায় অন্য অতিথিরাও উঠেছেন।

সেই হোটেলে অস্ট্রেলিয়া সময় রোববার রাতে সিরিজ শেষে দুই দল মিলে বসেছিল গেট টুগেদার পার্টিতে। প্রতি সিরিজ শেষেই মূলত এটি করে তারা। এই পার্টি চলতে চলতে হয়ে যায় সোমবার ভোর। যে কারণে রীতিমতো পুলিশ এনে বন্ধ করা হয় দুই দলের এই পার্টি।

ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটারদের পার্টিতে এতো বেশি শব্দ হচ্ছিল যে তা অন্যান্য অতিথিদের সমস্যা করছিল। তাই সেখানেরই এক অতিথি পুলিশে ফোন দেন। পরে তাসমানিয়ান পুলিশের চারজন সদস্য এসে সোমবার ভোরে সেই পার্টি বন্ধ করে দেন।

jagonews24

একটি ভিডিও ক্লিপে দেখা গেছে, ইংল্যান্ডের অধিনায়ক জো রুট, সর্বোচ্চ উইকেটশিকারি জেমস অ্যান্ডারসন ও অস্ট্রেলিয়ার তিন ক্রিকেটার নাথান লিয়ন, অ্যালেক্স ক্যারে ও ট্রাভিস হেড মিলে বিয়ারের বোতল হাতে নিয়ে আড্ডা দিচ্ছেন।

পরে সেই ভিডিওতে দেখা যায় একজন পুলিশ কর্মকর্তা এসে ক্রিকেটারদের বলছেন, ‘তোমরা অনেক বেশি আওয়াজ করছো। তোমাদের এরই মধ্যে এই পার্টি শেষ করে (রুমে) ফিরে যেতে বলা হয়েছে।’ তখন ঘড়িতে বাজছিল সকাল ৬টা ৩০ মিনিট।

পুলিশ কর্মকর্তার হস্তক্ষেপে খেলোয়াড় ও দলের সদস্যরা ফিরে যান। তবে ইংল্যান্ডের সহকারী কোচ গ্রাহাম থর্পকে বলতে শোনা যায়, ‘আইনজীবিদের জন্য এটি ভিডিও করে রাখো।’

এ বিষয়ে ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের এক মুখপাত্র বলেছেন, ‘সোমবার সকালে হোবার্টে টিম হোটেলে অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ডের খেলোয়াড়রা একসঙ্গে বসে পান করছিল। তখন হোটেলের এক অতিথির কাছ থেকে অভিযোগ পায় কর্তৃপক্ষ। তাই সেখানে পুলিশ আসে।’

তিনি আরও যোগ করেন, ‘হোটেল কর্তৃপক্ষ ও পুলিশ কর্মকর্তারা যখন সরে যেতে বলেছিল, তখন খেলোয়াড় ও টিম স্টাফরা নিজ নিজ রুমে ফিরে যায়। এই ঘটনায় ইংল্যান্ড দলের পক্ষ থেকে দুঃখপ্রকাশ করা হয়েছে। তবে বিস্তারিত জানার জন্য এ বিষয়ে তদন্ত করবে বোর্ড।’

এসএএস/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]