এবার ২-৩ জন নতুন খেলোয়াড় উঠে আসবে, বিশ্বাস সাকিবের

ক্রীড়া প্রতিবেদক ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১২:২৮ পিএম, ১৯ জানুয়ারি ২০২২

তরুণদের নিজেদের মেলে ধরার বড় মঞ্চ বিপিএল। এই টুর্নামেন্টে ভালো ভালো বিদেশি ক্রিকেটার খেলতে আসায় তাদের সঙ্গে খেলে তরুণরা নিজেদের সামর্থ্যে আস্থা আর বিশ্বাস খুঁজে পান। যা কিনা তাদের আন্তর্জাতিক আঙিনায় পারফর্ম করার মতো যোগ্য করে তোলে।

ভারতের আইপিএল মাত করে জাসপ্রিত বুমরাহ, রিশাভ পান্তের মতো বড় বড় ক্রিকেটার উঠে এসেছেন। বাংলাদেশের ক্রিকেটের উন্নতিতেও বিপিএলের ভূমিকা কম নয়।

সামনে নতুন একটি আসর। ২১ জানুয়ারি থেকে মাঠে গড়াচ্ছে বিপিএলের অষ্টম আসর। গতকাল (মঙ্গলবার) হয়ে গেলো বরিশাল ফরচুনের জার্সি
উম্মোচন অনুষ্ঠান। যে দলটিতে খেলবেন দেশের ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় তারকা সাকিব আল হাসান।

কেমন হলো এবারের বরিশাল দলটি? সাকিব বলেন, ‘আমি ব্যক্তিগতভাবে মনে করি আমরা খুব ভারসাম্যপূর্ণ একটি দল। খেলা শুরু হলে কিছু কিছু ঘাটতি দেখা দিতে পারে, যেগুলো কাটিয়ে ওঠার চেষ্টা করব। দেশি বিদেশি তুলনা করতে চাই না বা কার গুরুত্ব বেশি কার গুরুত্ব কম সেটা বলতে চাই না। মাঠে ১১ জন খেলবে, বাইরে ডাগআউটে যারা থাকবে সবাই মিলে যদি একসাথে কাজ করতে পারি তাহলে ফলাফল আসা সম্ভব।’

কোন দল চ্যাম্পিয়ন হতে পারে এবার? সাকিবের জবাব, ‘যে ছয়টা দল এসেছে সবাই চাইবে চ্যাম্পিয়ন হতে। সবাই ভালো, ভারসাম্যপূর্ণ দল। দিনশেষে মাঠে কে ভালো পারফর্ম করবে এটার ওপর নির্ভর করছে। চেষ্টা থাকবে মাঠে যেন আমরা ভালো করতে পারি।’

সাকিব মনে করছেন, বিপিএল দেশি ক্রিকেটারদের নিজেদের মেলে ধরার বড় সুযোগ। এবার বিপিএল দিয়ে জাতীয় দলের প্রতিনিধিত্ব করার মতো ২-৩ জন নতুন ক্রিকেটার উঠে আসবে, বিশ্বাস সাকিবের।

তিনি বলেন, ‘দেশি ক্রিকেটারদের জন্য তো বড় একটা সুযোগ, বড় একটা মঞ্চ নিজেদেরকে মেলে ধরার, নিজেদের পারফরম্যান্স দিয়ে জাতীয় দলে আসার। আমি বিশ্বাস করি এখান থেকে আমরা ২ কিংবা ৩ জন নতুন খেলোয়াড় পাব যারা বাংলাদেশকে অন্তত টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে প্রতিনিধিত্ব করতে পারবে।’

এবারের বিপিএলে থাকছে না ডিআরএস। বিষয়টা কীভাবে দেখছেন? সাকিব মনে করছেন, বিসিবি সর্বোচ্চ চেষ্টাই করেছে। এখন না পেলে তো আর কিছু করার নেই।

সাকিবের কথা, ‘যে প্রযুক্তিটা ব্যবহার হচ্ছে, সেটা খুব বেশি দিন আসেনি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে। যদি থাকত অবশ্যই খুব ভালো হত। না থাকাটা একটু হতাশার। কিন্তু আমার ধারণা বিসিবি তাদের জায়গা থেকে সর্বোচ্চ চেষ্টা করেছে। আপনারা যদি বিসিবির সিইওর সাক্ষাৎকারটা দেখে থাকেন, তারা আইসিসি পর্যন্ত চেষ্টা করেছে ডিআরএসটা আনার জন্য। যেহেতু সম্ভব হয়নি এটা নিয়ে কথা বলার আর কিছু নেই। আমার কাছে মনে হয় খুব ভালো এবং ফেয়ার একটা টুর্নামেন্ট হবে। যেখানে সেরা দলটাই জিতবে।’

এমএমআর/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]