বাংলাদেশের ‘ঘরের শত্রু বিভীষণ’কে কাজে লাগাতে চায় শ্রীলঙ্কা

ক্রীড়া প্রতিবেদক ক্রীড়া প্রতিবেদক চট্টগ্রাম থেকে
প্রকাশিত: ০৯:০৯ পিএম, ১৪ মে ২০২২

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে এখন পর্যন্ত চারটি টেস্ট খেলেছে বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কা। এই মাঠে ২০০৬ ও ২০০৯ সালে জিতলেও, শেষ ২০১৪ ও ২০১৮ সালের দুই সিরিজে জিততে পারেনি তারা। রানবন্যার সেই দুই ম্যাচ শেষ হয়েছিল নিষ্ফলা ড্রয়ে।

এবার সেই হতাশা ভাঙতে চায় শ্রীলঙ্কা। আর সেই কাজটা তারা করতে চায় সহকারী কোচ নাভিদ নেওয়াজকে বাংলাদেশের ‘ঘরের শত্রু বিভীষণ’ বানিয়ে।

ম্যাচের আগের দিন লঙ্কান অধিনায়ক দিমুথ করুনারাত্নে জানালেন, নাভিদ নওয়াজের বাংলাদেশের অনূর্ধ্ব-১৯ দলের কোচ হিসেবে থাকার অভিজ্ঞতা কাজে লাগাতে চায় সফরকারীরা।

করুনারাত্নে বলেন, ‘(নাভিদ নওয়াজের থাকা) এটি আমাদের জন্য বিরাট সুবিধা। নাভিদ নওয়াজ বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের সঙ্গে ছিল বেশ কয়েক বছর। তবে সে এখানের কন্ডিশন সম্পর্কে ভালোভাবে জানে। আমরা সেখান থেকে ধারণা পেতে পারি।’

সঙ্গে যোগ করেন, ‘তবে আমার মনে হয় না, আগের বছরগুলোর ফলাফল এই সিরিজে কোনো প্রভাব রাখবে। প্রথম বল থেকে পঞ্চম দিন পর্যন্ত ভালো খেলতে হবে আমাদের। আমার মনে হয়, চট্টগ্রামে কখনও জিতিনি আমরা (গত দশ বছর জেতেনি শ্রীলঙ্কা, তার আগে আছে দুই জয়)। ঢাকায় বেশিরভাগ ম্যাচই জিতেছি। তাই আমাদের এখানে আগের ধারায় পরিবর্তন আনার জন্য জয় দিয়ে শুরু করতে হবে।’

এসময় বাংলাদেশের কন্ডিশনের সঙ্গে শ্রীলঙ্কার তুলনা করতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘দুই দেশের কন্ডিশনে সাদৃশ্য আছে। আমরা জানি এখানের উইকেটে খেলা কেমন হয়। চট্টগ্রামে বেশিরভাগ ফ্ল্যাট উইকেটই পাওয়া যায়। তাই তাদের ওপর চাপ সৃষ্টি করার জন্য আমাদের অনেক রান করতে হবে। গত কয়েক টেস্টে এখানে এমনটাই হচ্ছে। দেখে মনে হচ্ছে এটি ভালো, ফ্ল্যাট উইকেট।’

করুনারাত্নের শেষ কথা, ‘তবে আমরা যদি হোমওয়ার্কটা ভালোভাবে করতে পারি, তাহলে এখানের ফলাফলে পরিবর্তন আনতে পারি। যদি সেই পরিবর্তন করতে পারি, তাহলে হয়তো জয় নিয়েই ঢাকায় ফিরতে পারবো।’

এসএএস/এমএমআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]