তামিম-জয়ের ব্যাটে এগিয়ে রইলো বাংলাদেশ

ক্রীড়া প্রতিবেদক ক্রীড়া প্রতিবেদক চট্টগ্রাম থেকে
প্রকাশিত: ০৫:৫৮ পিএম, ১৬ মে ২০২২

শ্রীলঙ্কাকে চারশর আগে আটকানোর পরিকল্পনা ছিল বাংলাদেশ দলের। ডানহাতি অফস্পিনার নাইম হাসানের ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ে করা হয়েছে সেটি। পরে ব্যাটিংয়ে নেমে প্রয়োজন ছিল নির্বিঘ্নে দিনটি কাটিয়ে দেওয়া। সেটিও আস্থার সঙ্গে করেছেন তামিম ইকবাল ও মাহমুদুল হাসান জয়।

দুই ওপেনারের অবিচ্ছিন্ন ৭৬ রানের জুটিতে এগিয়ে থেকেই দ্বিতীয় দিনের খেলা শেষ করেছে বাংলাদেশ। প্রথম ইনিংসে ৩৯৭ রানে অলআউট হয়েছিল শ্রীলঙ্কা। ফলে এখন সফরকারীদের চেয়ে ৩২১ রানে পিছিয়ে রয়েছে বাংলাদেশ। তামিম ৩৯ ও জয় ৩১ রান নিয়ে তৃতীয় দিনের খেলা শুরু করবেন।

নিজেদের প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে শুরুতে খানিক নড়বড়ে ছিলেন তামিম ও জয়। আসিথা ফার্নান্দোর করা দ্বিতীয় ওভারেই স্লিপে ক্যাচ দিয়ে বসেছিলেন তামিম। তবে সেটি তালুবন্দী করতে পারেননি কুশল মেন্ডিস। অবশ্য পরে রিপ্লে দেখে সেই ডেলিভারিটি নো বল ঘোষণা করেন আম্পায়ার।

পরের ওভারের শেষ বলে অল্পের জন্য বোল্ড হওয়া থেকে বেঁচে যান জয়। বিশ্ব ফার্নান্দো ভেতরে ঢোকা ডেলিভারি ড্রাইভ করার চেষ্টায় তার ব্যাটের ভেতরের কানায় লাগে। অল্পের জন্য স্ট্যাম্প ঘেঁষে বল চলে যায় বাউন্ডারিতে। সেটিই ছিল বাংলাদেশের ইনিংসের প্রথম চার।

এরপর দিনের বাকি সময় লঙ্কান বোলারদের দিনে ছেলেখেলাই করেছেন দুই টাইগার ওপেনার। দিন শেষে ১৯ ওভারে ৭৬ রান যোগ করেছেন তারা। তামিম ৫২ বলে ৫ চারের মারে করেছেন ৩৫ রান। জয়ের ৬৬ বলে ৩১ রানের ইনিংসে রয়েছে পাঁচটি চারের মার।

এর আগে ৪ উইকেটে ২৫৮ রান নিয়ে আজকের খেলা শুরু করেছিল শ্রীলঙ্কা। আজ তারা আরও ৬৩ ওভার খেলে যোগ করেছেন ১৩৯ রান। মাত্র ১ রানের জন্য ডাবল সেঞ্চুরি করতে পারেননি অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউজ। বিশ্বের ১২তম ব্যাটার হিসেবে ১৯৯ রানে আউট হয়েছেন তিনি।

বাংলাদেশের পক্ষে বল হাতে ১০৫ রান খরচায় ৬ উইকেট নিয়েছেন নাইম। এটিই তার ক্যারিয়ারের সেরা বোলিং ফিগার। এছাড়া ৩৯ ওভার হাত ঘুরিয়ে মাত্র ৬০ রান খরচায় সাকিবের শিকার ৩ উইকেট। তাইজুল নিয়েছেন লঙ্কানদের অন্য উইকেটটি।

এসএএস/আইএইচএস/

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]