এশিয়া কাপ ক্রিকেটের আয়োজক হওয়ার সম্ভাবনা বাংলাদেশের

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৫:৫১ পিএম, ২১ মে ২০২২

২০১৮ সালের পর এশিয়ান ক্রিকেটের শ্রেষ্ঠত্বের আসর এশিয়া কাপ আর আয়োজন হয়নি। ২০২০ সালে হওয়ার কথা ছিল এই আসর। কিন্তু করোনার কারণে সেবার স্থগিত করা হয়েছিল।

২০২১ সালে আয়োজনের চেষ্টা করা হলেও ফাঁকা সময় বের করা সম্ভব হয়নি। সবশেষে চলতি বছর, এশিয়া কাপ আয়োজনের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। আগামী আগস্ট-সেপ্টেম্বরে শ্রীলঙ্কায় অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে মহাদেশীয় এই আসর।

কিন্তু এবার আবারও শঙ্কার মুখে পড়ে গেছে এশিয়া কাপ আয়োজন। কারণ, আয়োজক শ্রীলঙ্কার ভয়াবহ অর্থনৈতিক দুরবস্থা। বর্তমান পরিস্থিতিতে দেশটিতে এশিয়া কাপ আয়োজন প্রায় অসম্ভব ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে।

এমতাবস্থায়, এশিয়া কাপের বিকল্প আয়োজক হিসেবে উঠে আসছে বাংলাদেশের নাম। যদিও, বিষয়টা এখনও চূড়ান্ত নয়। তবে, বাংলাদেশ যে আগামী এশিয়া কাপের আয়োজক হতে যাচ্ছে- সে সম্ভাবনা একেবারেই উড়িয়ে দেয়া যাচ্ছে না।

আগস্টের ২৭ তারিখ শুরু হওয়ার কথা এশিয়া কাপের। শেষ হওয়ার কথা ১১ সেপ্টেম্বর। শ্রীলঙ্কার বর্তমান পরিস্থিতিতে এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলকে (এসিসি) বিকল্প আয়োজক নিয়ে ভাবতে হচ্ছে। শোনা যাচ্ছে, এসিসি বাংলাদেশকেই বিকল্প আয়োজক হিসেবে ভাবছে।

এর কারণও আছে অবশ্য। এশিয়ান ক্রিকেট পরাশক্তি ভারত এবং পাকিস্তানে এই টুর্নামেন্টটি আপাতত আয়োজন করা সম্ভব হচ্ছে দু’দেশের রাজনৈতিক বৈরি সম্পর্কের কারণে। আফগানিস্তানে তো আয়োজন করা সম্ভবই না। বাকি অপশন থাকে আরব আমিরাত এবং ওমান। কিন্তু ওই সময়টা যে তীব্র গরম থাকে, তাতে সেখানে টুর্নামেন্ট আয়োজনের চিন্তাই করা যাচ্ছে না।

শ্রীলঙ্কান ক্রিকেট বোর্ড (এসএলসি) এখনও এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিক কোনো ঘোষণা দেয়নি। তারা জানায়নি যে, আমরা অপারগ। তারা অপারগতা প্রকাশ করলেই এসিসি বিকল্প ভেন্যু নিয়ে আলোচনা করতো। গত ১৯ মার্চ শ্রীলঙ্কাকে আয়োজক নির্ধারণ করার কথা জানিয়েছিল এসিসি।

শ্রীলঙ্কান নতুন প্রধানমন্ত্রী অনিল বিক্রমাসিংহে স্পষ্টতই জানিয়ে দিয়েছেন, আগামী দুই মাস শ্রীলঙ্কান জনগনকে জীবনের সবচেয়ে কঠিন সময় অতিবাহিত করতে হবে। তরতর করে বেড়ে চলছে দ্রব্যমূল্য। বিদ্যুতের অভাবে জ্বলছে না শহরগুলোর আলো। জ্বালানির অভাবে ঘুরছে না গাড়ির চাকা। কাগজের অভাবে শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা একের পর এক স্থগিত করা হচ্ছে।

এমন পরিস্থিতিতে এশিয়া কাপ আয়োজন কঠিন হয়ে দাঁড়িয়েছে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটের (এসএলসি) জন্য। আর্থিক অনটনের কারণে লঙ্কান বোর্ড এরইমধ্যে সিরিজ-টুর্নামেন্ট আয়োজনে সীমাবদ্ধতা টেনেছে। এশিয়া কাপ আয়োজনে এখনও ৩ মাসের বেশি সময় হাতে আছে এসিসির। তবে আগামী কিছু দিনের মধ্যেই জানা যেতে পারে, কে আয়োজন করবে এশিয়া কাপের এবারের আসর।

এসিসির এক কর্মকর্তার উদ্বৃতি দিয়ে ভারতীয় গণমাধ্যম জানিয়েছে, ‘এ মুহূর্তে বাংলাদেশই বিকল্প। এসিসি শ্রীলঙ্কার অবস্থা পর্যবেক্ষণ করছে। আগস্ট-সেপ্টেম্বরে আরব আমিরাতে খেলা সম্ভব নয়।’

আইএইচএস/

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]