এই মুশফিককে মিস করবেন ডোমিঙ্গো

ক্রীড়া প্রতিবেদক ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:৪৬ পিএম, ২৩ মে ২০২২

চট্টগ্রামে সিরিজের প্রথম ম্যাচে মুশফিকুর রহিম খেলেছিলেন ১০৫ রানের ইনিংস। ধারাবাহিকতা ধরে রেখে আজ দ্বিতীয় ম্যাচের প্রথম ইনিংসেও হাঁকালেন সেঞ্চুরি। তবে গুণগত মান বিবেচনায় চট্টগ্রামের সেঞ্চুরি তো বটেই, মুশফিকের ক্যারিয়ারের অন্যতম সেরা ইনিংসই বলা যায় এটিকে।

টপঅর্ডারের ভয়াবহ ব্যর্থতায় মাত্র ২৪ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে ফেলেছিল বাংলাদেশ। সেখান থেকে লিটন দাসকে নিয়ে অবিচ্ছিন্ন ২৫৩ রানের জুটি গড়ে টাইগার শিবিরে স্বস্তি এনে দিয়েছেন দলের অভিজ্ঞতম ব্যাটার। দিন শেষে ৩৫১ মিনিট ব্যাট করে ২৫২ বলে ১৩ চারের মারে ১১৫ রানে অপরাজিত রয়েছেন তিনি।

শুধু সংখ্যা দিয়ে আসলে মুশফিকের ইনিংসের মাহাত্ম্য বোঝানো সম্ভব নয়। ব্যাটিংয়ে নেমে শুরু থেকেই সাবলীল ছিলেন তিনি। হোক পেস কিংবা স্পিন- নিখুঁত ব্যাটিংয়ে একপ্রান্তে পরম নির্ভরতা এনে দিয়েছেন মুশফিক। তার এমন ব্যাটিংয়ে নির্ভার করেছে আরেক প্রান্তে থাকা লিটন দাসকেও। যার সুবাদে মিলেছে ইতিহাসগড়া জুটি

কিন্তু এই মুশফিককেই পাওয়া যাবে না আসন্ন ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে। পবিত্র হজ পালনের উদ্দেশ্যে এই সফর থেকে ছুটি নিয়েছেন মুশফিক। তাই রোববার রাতে তাকে ছাড়াই ক্যারিবীয় সফরের তিন সিরিজের স্কোয়াড ঘোষণা করেছে বিসিবি। এমন ফর্মে থাকা মুশফিককে ওয়েস্ট ইন্ডিজে মিস করবেন রাসেল ডোমিঙ্গো।

মিরপুর টেস্টের প্রথম দিন শেষে সংবাদ সম্মেলনে টাইগারদের হেড কোচ বলেছেন, ‘অবশ্যই আমরা তাকে মিস করবো। তবে এটি ভবিষ্যতের খেলোয়াড়দের দেখে নেওয়ার একটি সুযোগ। মুশফিক, সাকিব, তামিমরা আজীবন থাকবে না। তাই (ইয়াসির) রাব্বি, (নাজমুল) শান্তদের জন্য যথেষ্ট সময় প্রয়োজন আমাদের। মুশফিকরা শেষ করার আগেই রাব্বিদের নামের পাশে ১৫-২০টি টেস্ট থাকা উচিত।’

এ সময় মুশফিকের ব্যাটিংয়ের প্রশংসায় ডোমিঙ্গো বলেন, ‘আমার দেখা, অনুশীলনে তার চেয়ে বেশি বল আর কেউ খেলে না। ভালো করার জন্য তার ইচ্ছাশক্তি প্রবল। আমার মনে হয়, অনেক খেলোয়াড় থাকে যারা নিজেদের খারাপ সময়ে আরেকটু বেশি ভালোবাসা ও সমর্থন আশা করে।’

তিনি আরও যোগ করেন, ‘গত কয়েক ম্যাচে মুশফিক নিজের টেকনিক নিয়ে বেশ কাজ করেছে। তবে সে জানে কিভাবে রান করতে। এখানে বিষয়টা হলো, যারা খারাপ সময়ের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে তাদের পূর্ণ সমর্থন দেওয়া। একটু খারাপ সময় গেলেই আপনি মানসম্পন্ন খেলোয়াড়দের ভুলে যেতে পারেন না। ধৈর্য্য ধরে তাদের সামর্থ্যে আস্থা রাখতে হবে।’

এসএএস/আইএইচএস/

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]