৪৯৮ রান! ওয়ানডেতে ফের বিশ্বরেকর্ড ইংল্যান্ডের

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৭:০৯ পিএম, ১৭ জুন ২০২২

আগের রেকর্ডটাও ছিল তাদেরই। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ২০১৮ সালে ট্রেন্ট ব্রিজে ৬ উইকেটে ৪৮১ রান করেছিল ইংল্যান্ড। যেটি ছিল এতদিন পর্যন্ত ওয়ানডেতে কোনো দলের সর্বোচ্চ সংগ্রহের বিশ্বরেকর্ড।

আজ (শুক্রবার) অ্যামস্টেলভিনে নিজেদেরই সেই রেকর্ড ভেঙে ফেলেছে ইংল্যান্ড। নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে তারা তুলেছে ৪ উইকেটে ৪৯৮। এটিই এখন নতুন বিশ্বরেকর্ড।

শুধু দলীয় সংগ্রহের নয়, এই ম্যাচে একগাদা রেকর্ড গড়েছেন ইংল্যান্ডের ব্যাটাররা। এক ম্যাচে তিনজন করেছেন সেঞ্চুরি। তারা হলেন-ফিল সল্ট, ডেভিড মালান আর জস বাটলার। ওয়ানডেতে ইংল্যান্ডের তিন ব্যাটারের সেঞ্চুরি করার ঘটনা এবারই প্রথম।

টস জিতে ইংলিশদের ব্যাটিংয়ে পাঠানোই যেন কাল হয় নেদারল্যান্ডসের। শুরুটা অবশ্য ভালোই ছিল। ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারেই জেসন রয় (১) সাজঘরের পথ ধরেন। ইংল্যান্ডের বোর্ডে তখন মাত্র ১ রান। কে জানতো, ডাচদের সামনে এমন দুঃস্বপ্ন অপেক্ষা করছে!

দ্বিতীয় উইকেটে ডেভিড মালান আর ফিল সল্ট গড়েন ১৭৮ বলে ২২২ রানের বিশাল জুটি। মালান আর সল্ট-দুজনই পেয়েছেন ওয়ানডেতে তাদের প্রথম সেঞ্চুরি।

৯৩ বলে ১৪ বাউন্ডারি আর ৩ ছক্কায় ১২২ রানের ইনিংস খেলে আউট হন সল্ট। ১০৯ বলে ৯ চার আর ৩ ছক্কায় ডেভিড মালান করেন ১২৫।

jagonews24

তাদের দুজনকেও ছাড়িয়ে গেছেন জস বাটলার। মাঠে নামার পর ডাচ বোলারদের ওপর রীতিমত সুনামি বইয়ে দেন তিনি। ৪৭ বলে সেঞ্চুরি করেন বাটলার। ইংল্যান্ডের পক্ষে এটি দ্বিতীয় দ্রুততম, প্রথমটিও তারই।

সুযোগ ছিল এবি ডি ভিলিয়ার্সের ৬৪ বলে ১৫০ রানের রেকর্ড ভাঙার। একটুর জন্য সেটা পারেননি। তবে ৬৫ বলে ১৫০ রান স্পর্শ করেন জস বাটলার। শেষ পর্যন্ত ৭০ বলে ১৬২ রানের অতিমানবীয় ইনিংস খেলে অপরাজিত থাকেন ডানহাতি এই ব্যাটার, যে ইনিংসে চারের চেয়ে ছক্কা হাঁকিয়েছেন দ্বিগুণ (৭ চার, ১৪ ছক্কা)।

দক্ষিণ আফ্রিকান কিংবদন্তি ডি ভিলিয়ার্সের আরেকটি রেকর্ডও ছিল হুমকির মুখে। লিয়াম লিভিংস্টোন ১৪ বলেই পৌঁছে গিয়েছিলেন ৪৮ রানে। তবে শেষ পর্যন্ত ডি ভিলিয়ার্সের ১৬ বলে দ্রুততম ফিফটির রেকর্ডটিও অক্ষুণ্ন রয়ে গেছে।

১৭ বলে হাফসেঞ্চুরি করেন লিয়াম লিভিংস্টোন। ওয়ানডেতে ইংল্যান্ডের পক্ষে এটি দ্রুততম হাফসেঞ্চুরি। এই ফরম্যাটে যৌথভাবে দ্বিতীয় দ্রুততম। ১৭ বলে সেঞ্চুরি আছে সনাথ জয়সুরিয়া, মার্টিন গাপটিল আর কুশল পেরেরার।

লিভিংস্টোন মাত্র ২২ বলে ৬৬ রানে অপরাজিত থাকেন। ৩০০ স্ট্রাইকরেটের বিধ্বংসী এই ইনিংসে ৬টি করে চার-ছক্কা হাঁকান ইংলিশ এই ব্যাটার।

এমএমআর/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]