আরেকটু ভালো ব্যাটিং করা উচিত ছিল: তামিম

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১১:২৫ এএম, ২৫ জুন ২০২২

শুরুটা খুব খারাপ ছিল না। টস হেরে ব্যাট করতে নেমে মাহমুদুল হাসান জয়কে নিয়ে ১২.২ ওভার কাটিয়ে দেন তামিম ইকবাল। উদ্বোধনী জুটির ৪১ রানে জয়ের অবদান ছিল মাত্র ১০। তামিম খেলছিলেন প্রতিপক্ষের চোখে চোখ রেখে।

সহজাত ব্যাটিংয়ে তামিম এগিয়ে যাচ্ছিলেন হাফসেঞ্চুরির দিকে। কিন্তু মাত্র ৪ রানের জন্য সেটি করতে পারেননি। মধ্যাহ্ন বিরতির একটু আগে আলজেরি জোসেফের বলে টাইমিং গড়বড় করে কভার পয়েন্টে ক্যাচ হন তামিম। ৬৭ বলে গড়া তার ৪৬ রানের ইনিংসে ছিল ৯টি বাউন্ডারির মার।

তবে হাফসেঞ্চুরি মিস নয়, তামিম আক্ষেপে পুড়ছেন ইনিংসটা বড় করতে না পারায়। প্রথম দিনের খেলা শেষে তিনি বলেন, ‘এমন শুরু পেলে সচরাচর আমার ইনিংসগুলো বড় হয় টেস্টে। দুর্ভাগ্যজনকভাবে আজকে বড় করতে পারিনি।’

জোসেফের বলটি কিছুটা লাফিয়ে উঠাতেই বিভ্রান্ত হন তামিম। তবে নিজের আউটে কোনো অজুহাত দিতে চান না তিনি। বাঁহাতি এই ওপেনার বলেন, ‘আজকে বলটা হয়তোবা আমি ছেড়ে দিতে পারতাম কিন্তু বলটা যতটুকু ওঠার কথা ছিল না ততটুকু উঠেছে। এ কারণে আমার ব্যাটের স্টিকারে লাগে। কিন্তু আমি এমন একজন যে এখানে এসে বলবনা এ কারণে হয়নি ও কারণে হয়নি। আমার কাছে মনে হয় এমন শুরু পেয়ে দলের সিনিয়র ক্রিকেটার হিসেবে টেনে নেওয়া উচিত ছিল। তাই আমার কোনো অজুহাত নেই।’

তামিমের আউটের পর নিয়মিত বিরতিতেই উইকেট হারিয়েছে বাংলাদেশ। লিটন দাস হাফসেঞ্চুরি করলেও ক্যারিবীয় বোলারদের তোপে শেষ পর্যন্ত ২৩৪ রানের বেশি এগোতে পারেনি সফরকারীরা।

তামিম মনে করছেন, আরেকটু ভালো ব্যাটিং করা উচিত ছিল দলের। তার কথা, ‘উইকেটটা উঁচু নিচু ছিল। কিন্তু আমাদের আরেকটু ভালো ব্যাটিং করা উচিত ছিল। আমরা যদি ৩০০ বা ৩২০ রান করতাম তাহলে ভালো স্কোর হত। কারণ খানিক উইকেট উঁচু নিচু ছিল।’

বাংলাদেশকে অলআউট করে দিয়ে প্রথম দিনে মারকুটে ব্যাটিংয়ে এগিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। চারের ওপর রানরেটে বিনা উইকেটে তুলেছে ৬৭।

তামিম মনে করছেন, দ্বিতীয় দিনের প্রথম সেশনটা খুব গুরুত্বপূর্ণ হবে। তিনি বলেন, ‘কালকে সকালের সেশনটা গুরুত্বপূর্ণ হবে কারণ এখানে খুব বেশি সুইং নেই। যেটা লাস্ট টেস্টে ছিল, এই টেস্টে খুব বেশি সুইং নাই। উইকেট সে কারণে খুব গুরুত্বপূর্ণ হবে। রানটা আটকে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব উইকেট নেওয়া যায়।’

এমএমআর/

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]