ক্যারিয়ারে প্রথম ফাইফার খালেদ আহমেদের

ক্রীড়া প্রতিবেদক ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১২:০৩ এএম, ২৭ জুন ২০২২

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচের দ্বিতীয় ইনিংসেই দুর্দান্ত বোলিং করেছেন বাংলাদেশের পেসার খালেদ আহমেদ। তার বোলিং তোপে হঠাৎই ৩ উইকেট হারিয়ে দিশেহারা হয়ে পড়েছিল ক্যারিবীয়রা। কিন্তু শেষ পর্যন্ত জন ক্যাম্পবেল আর জার্মেই ব্ল্যাকউডের ব্যাটে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ক্যারিবীয়রা।

মাত্র কিছুদিন আগে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষেও দুর্দান্ত বোলিং করেছিলেন খালেদ। প্রথম ম্যাচে এক ইনিংসে নিয়েছিলেন ৪ উইকেট। কাঙ্খিত ফাইফারের কাছাকাছি গিয়েও তার আর দেখা পেলেন না। পরের ম্যাচে এক ইনিংসে নিয়েছিলেন ৩ উইকেট।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ঘরের মাঠে ছিলেন উইকেটশূন্য। তবে দমে যাননি তিনি। ক্যারিবীয়দের পেস বান্ধব উইকেটে নিজেকে মেলে ধরলেন। প্রথম টেস্টে না পারলেও দ্বিতীয় টেস্টে এসে পেয়ে গেলেন সেই কাঙ্খিত ফাইফারের দেখা। ক্যারিয়ারে ৯ম টেস্টে এসে প্রথমবারের মত এক ইনিংসে নিলেন ৫ উইকেট।

ক্যারিবীয় ব্যাটিংয়ের ১২৭তম ওভার বল করতে এসে তৃতীয় বলটিতেই ব্যাটের কানায় লাগিয়ে উইকেটের পেছনে নুরুল হাসান সোহানের হাতে ক্যাচ দিতে বাধ্য করেন জাইডেন সিলসকে। সে সঙ্গে পূরণ হয়ে গেলো প্রথম ৫উইকেট নেয়ার গৌরব।

বাংলাদেশকে ২৩৪ রানে অলআউট করার পর ক্যারিবীয়রা ভালোই এগুচ্ছিলেন। ১০০ রানের উদ্বোধনী জুটি ভাঙেন শরিফুল। ১৩১ রানের মাথায় দ্বিতীয় উইকেটের পতন ঘটান মেহেদী হাসান মিরাজ। এরপরের ওভারেই ২ উইকেট তুলে নেন খালেদ। রেমন রেইফার এবং এনক্রুমাহ বোনারকে বোল্ড করেন তিনি।

বাংলাদেশের বোলারদের চারদিকে খেলে ১৪৬ রান করা কাইল মায়ার্সের উইকেটও আজ তুলে নেন খালেদ। শরিফুলের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন মায়ার্স। তার আগে অ্যালজারি জোসেফকে লিটন দাসের ক্যাচে পরিণত করেন খালেদ। জোসেফ করেন ৬ রান। শেষ ব্যাটার হিসেবে তুলে নেন জাইডেন সিলসকে।

শেষ পর্যন্ত তার বোলিং ফিগার ৩১.৩-৩-১০৬-৫।

আইএইচএস/

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]