২২৫ রান করেও আয়ারল্যান্ডের কাছে হারতে বসেছিল ভারত

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮:৫৩ এএম, ২৯ জুন ২০২২

টি-টোয়েন্টি সিরিজের শেষ ম্যাচে ভারতের কঠিন পরীক্ষাই নিলো স্বাগতিক আয়ারল্যান্ড। নিজেদের ইতিহাসের চতুর্থ সর্বোচ্চ ২২৫ রান করেও হারের শঙ্কা জেঁকে বসেছিল ভারতের ওপর। শেষ পর্যন্ত মাত্র ৪ রানে জিতে আইরিশদের বিপক্ষে সিরিজ নিজেদের করে হার্দিক পান্ডিয়ার দল।

ডাবলিনের মালাহিডে দিপক হুদার সেঞ্চুরিতে ভর করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ২২৫ রানের সংগ্রহ পায় ভারত। জবাবে কম যায়নি আইরিশরাও। সম্মিলিত মারকুটে ব্যাটিংয়ে জয়ের আশা জাগালেও, ৫ উইকেট ২২১ রানে থামতে হয় তাদের।

ম্যাচটি জিততে হলে ইতিহাসই গড়তে হতো আয়ারল্যান্ডকে। কেননা টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে তাদের সর্বোচ্চ সংগ্রহ-ই ২২৫ রান। সেটিই টপকে গড়তে হতো নতুন রেকর্ড। সেই মিশনে পাওয়ার প্লে'তেই ৭৩ রান তুলে ফেলেন দুই ওপেনার পল স্টারলিং ও অ্যান্ডি ব্যালবার্নি।

পাওয়ার প্লে'র শেষ ওভারে আউট হওয়ার আগে মাত্র ১৮ বলে পাঁচ চার ও তিন ছয়ের মারে ৪০ রানের ইনিংস খেলেন স্টারলিং। হতাশ করেন গ্যারেথ ডিলানি। তিনি আউট হন চার বলে শূন্য রান নিয়ে। তৃতীয় উইকেটে ৪ ওভারে ৪৪ রান যোগ করেন ব্যালবার্নি ও হ্যারি ট্যাক্টর।

টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারের ষষ্ঠ ফিফটিতে ৩৭ বলে ৬০ রান করে আউট হন ব্যালবার্নি। ট্যাক্টরের ব্যাট থেকে আসে ২৮ বলে ৩৯ রান। শেষ দিকে জর্জ ডকরেল ১৬ বলে ৩৪ ও মার্ক অ্যাডায়ার ১২ বলে ২৩ রান করে ভারতের খেলোয়াড়দের মনে কাঁপন ধরান। কিন্তু জেতাতে পারেননি।

ভারতের পক্ষে খরুচে বোলিং করেছেন প্রায় সবাই। সবচেয়ে মিতব্যয়ী বাঁহাতি স্পিনার অক্ষর প্যাটেল দুই ওভারে দিয়েছেন ১২ রান। আগের ম্যাচে অভিষেকে এক ওভারে ১৪ রান দেওয়া উমরান মালিক এবার চার ওভারে ৪২ রান খরচায় নিয়েছেন এক উইকেট।

jagonews24

এর আগে ভারতকে ২২৫ রানে পৌঁছে দেওয়ার মূল কৃতিত্ব দীপক হুদার। প্রথম ম্যাচে ৪৭ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলে দলকে জেতানোর পর এবার ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন হুদা। তিন নম্বরে নেমে সাত চার ও ছয় ছয়ের মারে করেছেন ৫৭ বলে ১০৪ রান।

হুদার সঙ্গে দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে ১৭৬ রান যোগ করেছেন সানজু স্যামসন। যা কি না টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে যেকোনো উইকেটে ভারতের সর্বোচ্চ রানের জুটির রেকর্ড। এই রেকর্ড গড়ার পথে মাত্র ৪২ বলে সাত চার ও চার হয়ের মারে ৭৭ রান করেন স্যামসন।

স্যামসন-হুদার ঝড়ের পর সুর্যকুমার যাদব ৫ বলে ১৫ ও হার্দিক পান্ডিয়া ৯ বলে ১৩ রান করেন। এছাড়া দিনেশ কার্তিক, হার্শাল প্যাটেল ও অক্ষর প্যাটেল আউট হন ০ রানে। মার্ক অ্যাডায়ার নেন ৩ উইকেট। জশ লিটল ও ক্রেইগ ইয়ংয়ের শিকার ২টি করে উইকেট।

এসএএস/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]