ইমরুল-নাইমের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে ৯ উইকেটের জয় টাইগার্সের

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৭:৩৬ পিএম, ০৩ জুলাই ২০২২

শেষ পর্যন্ত বড়দের সঙ্গে আর কুলিয়ে উঠতে পারলো না এইচপির তরুণরা। যুব বিশ্বকাপজয়ী আকবর আলীর বাহিনীকে ঠিক হারিয়ে দিল ইমরুল কায়েস, সৌম্য সরকার, নাইম শেখদের গড়া জাকির হাসানের বাংলা টাইগার্স।

রাজশাহীর শহীদ কামরুজ্জামান স্টেডিয়ামে ৪ দিনের ম্যাচে আজ রোববার শেষ দিনের বিলম্বিত ভেলকিতে ৯ উইকেটের বড় জয় পেয়েছে টাইগার্স।

প্রথম ইনিংসে ৯১ রানে পিছিয়ে থাকা এইচপি দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নেমে কাল শনিবার তৃতীয় দিন শেষে ৪ উইকেটে তুলেছিল ১২৩ রান। তাতে করে আকবর আলীর দলের লিড ছিল ৩২ রান। কিন্তু হাতে ৬ উইকেট থাকা সত্বেও আজ রোববার শেষ দিন স্কোরলাইনকে আর বড় করা সম্ভব হয়নি। আর মাত্র ৯৪ রান তুলতেই তারা হারিয়ে ফেলে বাকি ৬ উইকেট।

আগের দিনের দুই অপরাজিত ব্যাটার সাহাদাত হোসেন দিপু আর আইচ মোল্লা এইচপিকে এগিয়ে নিতে পারেননি। ৩০ রানে নটআউট সাহাদাত দিপু ফিরে যান ৪০ রানে। আর ৮ রানে অপরাজিত আইচ মোল্লা আউট হন ১৫ রানে।

টাইগার্সের বাঁহাতি স্পিনার তানভির ইসলাম একাই ৪ উইকেটের পতন ঘটান। আর বাঁহাতি পেসার আবু হায়দার রনি পান ৩ উইকেট। ২১৭ রানে গুটিয়ে যায় এইচপির দ্বিতীয় ইনিংস। ফলে জিততে টাইগার্সের দরকার পড়ে মাত্র ১২৭ রানের।

অভিজ্ঞ ইমরুল কায়েস এবং এবার ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে জাতীয় দলে জায়গা না পাওয়া নাইম শেখের ওয়ানডে মেজাজের ব্যাটিংয়ে অনায়াসে ওই রান টপকে ৯ উইকেটের বড় জয় তুলে নেয় জাকির হাসানের বাংলা টাইগার্স।

নাইম শেখ ৫৫ বলে ৪৭ রানে থাকেন নটআউট। আর সিনিয়র পারফরমার ইমরুল কায়েসের ব্যাট অপরাজিত ছিল ৬৮ রানে। মাত্র ৬৯ বলে ৯ টি বাউন্ডারি আর তিনটি ছক্কা হাকান ইমরুল। নাইম শেখের ইনিংসে ছিল ৬ বাউন্ডারি আর এক ছক্কা।

টাইগার্সের একমাত্র আউট হওয়া ব্যাটার হলেন সৌম্য সরকার (৯)। তাকে আউট করেন এইচপির বাঁ-হাতি পেসার মৃত্যুঞ্জয়। মাত্র ২০ রানে উদ্বোধনী জুটি ভাঙ্গার পর নাইম শেখ আর ইমরুল কায়েস দ্বিতীয় উইকেটে ১১১ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়ে দল জিতিয়ে বিজয়ীর বেশে মাঠ ছাড়েন।

বাংলা টাইগার্স প্রথম ইনিংস: ৩১৮/৯, ৮৭.৫ ওভার ও দ্বিতীয় ইনিংস: ১৩১/১, ২২.৩ ওভার (নাইম শেখ ৪৭*, সৌম্য সরকার ৯, ইমরুল কায়েস ৬৮*; মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরী ১/৩৪)।

এইচপি প্রথম ইনিংস: ২২৭/১০ ও দ্বিতীয় ইনিংস: ২১৭/১০, ৭৪.৫ ওভার (মাহফিজুল ইসলাম রবিন ২৭, তানজিদ তামিম ৩৩, অমিত ৪, সাহাদত হোসেন দিপু ৪০, তৌহিদ হৃদয় ৬, আইচ মোল্লা ব্যাটিং ১৫, আকবর আলী ১৩, রিশাদ হোসেন ৩১, এনামুল হক ২৩; তানভির ইসলাম ৪/৩৫, আবু হায়দার রনি ৩/৩৫, নাইম হাসান, হাসান মাহমুদ ও মোহাম্মদ হালিম একটি করে উইকেট)।

এআরবি/আইএইচএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]