‘দেশের হয়ে খেলার জন্য কারও হাত-পা ধরা তো সম্ভব নয়’

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১১:১৬ এএম, ১১ আগস্ট ২০২২

আন্দ্রে রাসেল নিজেকে জাতীয় দলের জন্য বিবেচনার বাইরে রেখেছেন, সুনিল নারিনের বিষয়টি পুরোপুরি রহস্য। এভিন লুইস ও ওশান থমাস ফিটনেস টেস্ট দিতেই হাজির হননি। চোট সমস্যায় নেই শেলডন কটরেল ও রস্টোন চেজ, ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে ছুটি নিয়েছেন ফাবিয়ান অ্যালেন।

একগাদা খেলোয়াড়কে নিয়ে এমন অনিশ্চয়তার কারণে আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের দল গোছানো নিয়ে বিপদে পড়ে গেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজের টিম ম্যানেজম্যান্ট। তার ওপর ঘরের মাঠে ভারতের কাছে সিরিজ হেরেছে ১-৪ ব্যবধানে, নিউজিল্যান্ডও প্রথম ম্যাচ জিতে গেছে তাদের বিপক্ষে।

কিউইদের বিপক্ষে এ সিরিজটিই বিশ্বকাপের আগে নিজেদের খেলোয়াড়দের পরখ করে নেওয়ার শেষ সুযোগ ক্যারিবীয় টিম ম্যানেজম্যান্টের জন্য। কেননা এরপরই শুরু হবে ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগ। যা শেষে বিশ্বকাপের চূড়ান্ত প্রস্তুতিতে মন দিতে হবে তাদের।

তার আগে ক্রিকেটারদের জাতীয় দলের হয়ে খেলার ব্যাপারে অনিশ্চয়তার বিষয়টি পোড়াচ্ছে ওয়েস্ট ইন্ডিজের প্রধান নির্বাচক ডেসমন্ড হেইন্স ও হেড কোচ ফিল সিমন্সকে। দুজনই এ বিষয়ে নিজেদের হতাশার কথা প্রকাশ করেছেন। রীতিমতো অসহায় অবস্থায় পড়ে গেছেন হেড কোচ সিমন্স।

২০২১ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পর আর ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে খেলেননি রাসেল। অথচ এখন নারিনের সঙ্গে দ্য হান্ড্রেড মাতাচ্ছেন তিনি। ঘরের মাঠে ভারত, নিউজিল্যান্ড কিংবা এর আগে বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজও খেলেননি তারা। আগামী জানুয়ারিতে আমিরাতের লিগের জন্যও নিবন্ধন করেছেন রাসেল।

এ বিষয়ে হেইন্স বলেছেন, ‘আমি যা বুঝতে পারছি, সে জাতীয় দলের বিবেচনায় নেই কারণ নিজেই নিজেকে দূরে রেখেছে। সবাইকে ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে খেলতে দেখতে ভালোবাসি আসি। ছেলেরা সবাই নিজেদের এভেইলেবল রাখলে আমার ভালো লাগে।’

তিনি আরও যোগ করেন, ‘তবে এখন আমার এটিও মাথায় রাখতে হয় যে ছেলেদের সামনে এখন অনেক পথ খোলা। যদি কোনো ক্রিকেটার ওয়েস্ট ইন্ডিজের আগে ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগের হয়ে খেলাকে প্রাধান্য দেয় তাহলে যারা প্রস্তুত আছে তাদের নিয়েই দল সাজাতে হবে।’

প্রধান নির্বাচক খানিক কোমল সুরে বললেও, হেড কোচ সিমন্স করেছেন কড়া মন্তব্য। তার ভাষ্য, ‘এটি খুবই কষ্ট দেয়। মেনে নেওয়া ছাড়া কোনো উপায়ও নেই। আমার মনে হয় না, নিজের দেশের হয়ে খেলার জন্য তাদের হাত-পা ধরার প্রয়োজন রয়েছে।’

সিমন্স আরও বলেন, ‘আপনি যদি ওয়েস্ট ইন্ডিজের প্রতিনিধিত্ব করতে চান, তাহলে অবশ্যই নিজেকে প্রস্তুত রাখবেন। এখন জীবন বদলে গেছে। যার সুবাদে সবার সামনেই বিভিন্ন জায়গায় যাওয়ার সুযোগ রয়েছে। সেক্ষেত্রে কেউ ওয়েস্ট ইন্ডিজের আগে অন্য কিছু বেছে নিলে তো আর কিছু বলার থাকে না।’

এসএএস/

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।