ভারতের ক্রিকেটারদের মোটা বলে খোটা সালমানের

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:৩৮ পিএম, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২২

ভারতীয় অধিনায়ক রোহিত শর্মার দিকে তাকালে যে কেউ বলে দেবেন, তিনি তো মোটা। পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক সালমান বাট শুধু রোহিত শর্মাই নন, ভারতের বেশ কয়েকজন ক্রিকেটারকে মোটা বলে খোটা দিলেন তিনি।

বিরাট কোহলি পথ দেখিয়েছিলেন। সেই পথ অনুসরণ করতে পারেননি ভারতীয় দলের অন্য ক্রিকেটাররা। সালমন বাটের মতে ভারতীয় দলে কয়েকজন ক্রিকেটার যথেষ্ট ফিট নন। বরং, কিছুটা স্থূলকায়।

এশিয়া কাপ এবং অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচে ভারতীয় দলের খেলা দেখে এমনটাই মনে হয়েছে সালমানের। ভারতীয় দলের ক্রিকেটারদের দেখে ৩৭ বছরের সাবেক এই ক্রিকেটারের যথেষ্ট ফিট মনে হয়নি। অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকার মতো দলের সঙ্গে সমানে সমানে পাল্লা দিতে হলে ভারতীয় ক্রিকেটারদের ফিটনেসের মান বাড়াতে হবে বলে মনে করছেন পাকিস্তানের এই সাবেক অধিনায়ক।

সালমান বাট বলেন, ‘ভারতের ক্রিকেটাররা বিশ্বের মধ্যে সবচেয়ে বেশি অর্থ পায়। ওরা সবচেয়ে বেশি ম্যাচও খেলে। অথচ ওরা সবার চেয়ে ফিট নয়। কেন বলতে পারেন? তুলনা করলে অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড বা দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেটাররা চেহারার দিক থেকে অনেক ভাল জায়গায়। শুধু তাই নয়, ফিটনেসের দিক থেকে এশিয়ার একাধিক দলও ভারতের থেকে এগিয়ে রয়েছে। ভারতের কয়েকজন ক্রিকেটারের ওজন বেশি। ওদের ফিটনেস নিয়ে আরও পরিশ্রম করতে হবে। কারণ ওরা সবাই দারুণ ক্রিকেটার।’

Salman butt

অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ম্যাচে ভারতীয় দলের অধিনায়ক রোহিত শর্মা এবং সহ-অধিনায়ক লোকেশ রাহুলকেও ফিল্ডিংয়ের সময় চনমনে লাগেনি বাটের। সাবেক এই ব্যাটারের মতে, ভারতীয় দলে কোহলি ছাড়া রবিন্দ্র জাডেজা এবং হার্দিক পান্ডিয়ার ফিটনেস সঠিক মানের। তিনি বলেছেন, ‘কে কী ভাবে, বলতে পারব না। আমার চোখে ভারতীয় দলের ফিটনেসের মান যথাযথ নয়। কয়েকজন সিনিয়র ক্রিকেটারের ফিটনেসই ঠিক জায়গায় নেই। কোহলি নিজেকে এ ব্যাপারে উদাহরণ হিসাবে তুলে ধরেছিল সতীর্থদের সামনে। শুধু জাদেজা আর হার্দিকই ওকে অনুসরণ করেছে। ওদের ফিটনেস সত্যিই দুর্দান্ত। রিশাভ পান্তের ফিটনেসের মানও ভাল নয়। ফিটনেস বাড়াতে পারলে সে আরও বিপজ্জনক ক্রিকেটার হয়ে উঠতে পারে।’

বাট তীব্র সমালোচনা করেছেন হার্শাল প্যাটেলেরও। তিনি বলেছেন, ‘মোহাম্মদ সিরাজ, উমরান মালিকদের কেন বসিয়ে রেখেছে ভারত? ওরা যথেষ্ট ভাল পেসার। হার্শাল কী বল করল! ৪০ রান দিয়েছে। ও কী আদৌ পেস বোলার। ওর তো তেমন শক্তিই নেই। বলে গতি কোথায়?’

কোহলি ভারতীয় দলের অধিনায়ক থাকার সময় থেকেই নিজের ফিটনেস অন্য মাত্রায় নিয়ে যান। ভারতীয় দলের হয়ে খেলতে হলে সবার ইয়ো ইয়ো পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়া বাধ্যতামূলক। তবে কি সেই কড়াকড়িতে শিথিলতা দেখা দিয়েছে? বাটের সমালোচনা তুলে দিল প্রশ্ন।

আইএইচএস/

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।