সিপিএল চ্যাম্পিয়ন জ্যামাইকা

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:১১ পিএম, ০১ অক্টোবর ২০২২

প্লে-অফে তারা উঠেছিল কোনোমতে, চার নম্বর দল হয়ে। সেই জ্যামাইকা তালাওয়াজই দুর্দান্ত খেলে জিতলো প্লে-অফের নকআউট দুই ম্যাচ। এবার ফাইনালে এসে তারা উড়িয়ে দিলো পয়েন্ট তালিকার শীর্ষ দল বার্বাডোজ রয়্যালসে।

শনিবার প্রভিডেন্সে ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (সিপিএল) ফাইনালে কাইল মায়ার্সের বার্বাডোজকে ৮ উইকেটে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে রভম্যান পাওয়েলের জ্যামাইকা।

এক ব্রেন্ডন কিং ঝড়েই একেবারে উড়ে গেছে বার্বাডোজ রয়্যালস। রান তাড়ায় তাকে যোগ্য সঙ্গ দেন শামারাহ ব্রুকস। ফলে ১৬২ রানের চ্যালেঞ্জিং লক্ষ্যও ২৩ বল হাতে রেখে পেরিয়ে যায় জ্যামাইকা।

সিপিএল ফাইনালে টসে জিতে ব্যাটিং নিয়েছিল বার্বাডোজ রয়্যালস। শুরুটা খারাপ করেননি দুই ওপেনার রাহকিম কর্নওয়াল এবং কাইল মায়ার্স। ২১ বলে ৩৬ করেন রাহকিম। আর মায়ার্স ১৯ বলে ২৯ রান করে প্যাভিলিয়নে ফেরেন।

তবে আজম খানের ৪০ বলে ৫১ রান বার্বাডোজকে বড় অক্সিজেন দেয়। এছাড়া ১৯ বলে ১৭ করেন জেসন হোল্ডার। বাকিরা অবশ্য কেউই দুই অঙ্কের ঘরে পৌঁছাতে পারেননি। জামাইকা তালাওয়াজের হয়ে ফ্যাবিয়ান অ্যালেন এবং নিকলসন গর্ডন ৩টি করে উইকেট নেন। ইমাদ ওয়াসিম নেন ১ উইকেট।

cpl2

রান তাড়া করতে নেমে শুরুতেই ধাক্কা খায় জ্যামাইকা তালাওয়াজ। প্রথম ওভারেই কেনার লুইসের উইকেট হারায় তারা। তখন দলের রান মাত্র ১। গোল্ডেন ডাক করে প্যাভিলিয়নে ফেরেন কেনার লুইস।

তবে দলের হাল ধরেন ব্রেন্ডন কিং। তাকে যোগ্য সঙ্গ দেন শামারাহ ব্রুকস। ৫০ বলে অপরাজিত ৮৩ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেন ব্রেন্ডন কিং। তার এই ইনিংসে ছিল ১৩টি চার এবং ২টি ছক্কার মার।

৩৩ বলে ৪৭ করে আউট হন শামারাহ ব্রুকস। তার এই ইনিংসটি সাজানো ২টি ছয় এবং ৬টি চারের সাহায্যে। এই জুটিই শক্ত ভিতের উপর দাঁড় করিয়ে দেয় জ্যামাইকাকে। এর পরে ব্রুকস আউট হলে ক্রিজে আসেন রভম্যান পাওয়েল। তিনি একটি ছক্কার সাহায্যে ১৩ বলে ১৪ করে অপরাজিত থাকেন।

জ্যামাইকা তালাওয়াজ ১৬.১ ওভারে ২ উইকেট হারিয়ে ১৬২ রান করে ম্যাচ পকেটে পুড়ে ফেলে। এটি তাদের তৃতীয় সিপিএল শিরোপা। বার্বাডোজের হয়ে কাইল মায়ার্স এবং জেসন হোল্ডার একটি করে উইকেট নেন।

এমএমআর/এমএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।