শাপেকোয়েন্সের বিমান দুর্ঘটনার এক বছর

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩:৫৪ পিএম, ২৯ নভেম্বর ২০১৭

ঠিক এক বছর আগে ভয়াবহ বিমান দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছিলেন ব্রাজিলিয়ান ক্লাব শাপেকোয়েন্সের অধিকাংশ ফুটবলারসহ প্রায় ৭১জন। গত বছর ২৮ নভেম্বর কোপা সুদামেরিকানার ফাইনালে কলম্বিয়ান ক্লাব অ্যাথলেটিকো ন্যাসিওনেলের মুখোমুখি হতে কলম্বিয়া রওয়ানা দিয়েছিল শ্যাপেকোয়েন্সের ফুটবলাররা।

যে বিমানে করে শ্যাপেকোয়েন্সি যাচ্ছিল কলম্বিয়া, তাতে মোট আরোহী ছিলেন ৭৭জন। রাত ঠিক ১.১৫ মিনিটেই দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কবলে পড়ে কলম্বিয়ার দুর্গম এক পাহাড়ি এলাকায় বিধ্বস্ত হয় বিমানটি। সেই ঘটনায় ৭১জনই প্রাণ হারান। বাকিদের আহত অবস্থায় উদ্ধার করা হলেও, সারাজীবন যে দুঃসহ স্মৃতি বয়ে বেড়াতে হবে, তার চেয়ে নিহত হলেও তাদের জন্য হয়তো ভালো ছিল।

Chapecoense

ভয়াবহ সেই দুর্ঘটনার বর্ষপূর্তি ছিল গতকাল দিবাগত রাতে। শ্যাপেকোয়েন্সের ক্লাব মাঠে শত শত ভক্ত-সমর্থক জড়ো হয়েছিল ওই ঘটনার সরণে। শত শত মোম জালিয়ে তারা হাজির হয়েছিল ক্লাব মাঠে। এরপর সেই জ্বলন্ত মোম হাতে করে সবাই ধীরে ধীরে গিয়ে উপস্থিত হন স্থানীয় ক্যাথেড্রালে। ঠিক রাত ১.১৫ মিনিটে বেজে ওঠে ক্যাথেড্রালের ঘণ্টাধ্বনি। ওই সময় কলম্বিয়ায় বিধ্বস্ত হয়েছিল শ্যাপেকোয়েন্সের ফুটবলারবাহী বিমানটি।

শ্যাপেকোয়েন্সের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় সাফল্য ছিল কোপা সুদামেরিকানার ফাইনালে ওঠা। অ্যাথলেটিকো ন্যাসিওনেলের বিপক্ষে সেই ফাইনাল আর শেষ পর্যন্ত খেলা হলো না ব্রাজিলিয়ান ক্লাবটির। তবে অ্যাথলেটিকো ন্যাসিওনেল এবং লাতিন আমেরিকা ফুটবল কনফেডারেশন, কনমেবলের কর্মকর্তারা গতবারের কোপা সুদামেরিকানাজয়ী হিসেবে শ্যাপেকোয়েন্সকেই ঘোষণা করে।

Chapecoense

ব্রাজিলিয়ান এই ক্লাবটি এখন সারা বিশ্বে ‘শাপে’ নামেই অনেক বেশি পরিচিত। বর্ষপূর্তির এই দিনটিতে ক্লাবটি সব ধরনের আয়োজন বন্ধ রেখেছিল। ক্লাবের পক্ষ থেকে ভক্ত-সমর্থকদের কাছে অনুরোধ জানানো হয়েছিল, বিমান দুর্ঘটনায় নিহত ফুটবলারদের আত্মার শান্তির খোঁজে প্রাথনা করার জন্য।

আইএইচএস/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :