স্থানীয় ফুটবলারদের স্বাধীনতা কাপ

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৯:২১ পিএম, ০৮ জানুয়ারি ২০১৮
স্থানীয় ফুটবলারদের স্বাধীনতা কাপ

রাফায়েলের গোলে শেখ জামালের জয়, সানডের গোলে জয়ের ধারায় আবাহনী। কিংবা কিংসলেতে উদ্ধার মোহামেডান, ব্রাদার্সকে গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্ট এনে দিলেন ব্রাদার্সকে- শেষ হতে যাওয়া বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে এগুলো মুখস্ত বাক্য। কোনো দলের জয় মানেই বিদেশির গোল- ঘরোয়া ফুটবলে এটাই যেন নিয়তি। তবে ১৬ জানুয়ারি থেকে শুরু হতে যাওয়া মৌসুমের শেষ টুর্নামেন্ট স্বাধীনতা কাপে বিদেশি ফুটবলারদের নাম উঠবে না দর্শক সমর্থকদের মুখে। মিডিয়ায়ও খুঁজে পাওয়া যাবে না এসব ভীনদেশি ফুটবলারদের নাম। স্বাধীনতা কাপে যে বিদেশিই থাকছে না!

স্বাধীনতা কাপ বলেই এ টুর্নামেন্ট বিদেশি খেলোয়াড় ছাড়া আয়োজন করে বাফুফে। অন্তত এ টুর্নামেন্টটি স্থানীয়দের নিজেকে প্রমাণ করার ক্ষেত্র। খেলার সুযোগই তো পাই না, পারফরম্যান্স দেখাবো কিভাবে- বলে যে স্থানীয় ফুটবলাররা গলা ফাটান তাদের এখন মাঠে দেখানোর পালা। আগামী মৌসুমে নিজেদের চাহিদা বাড়িয়ে নেয়ার জন্য স্বাধীনতা কাপ গুরুত্বপূর্ণ স্থানীয় ফুটবলারদের সামনে।

স্বাধনীতা কাপ হবে প্রিমিয়ার লিগের ১২ ক্লাব নিয়েই। আবাহনী, শেখ জামাল, চট্টগ্রাম আবাহনী, সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব, মোহামেডান, ব্রাদার্স, আরামবাগ, শেখ রাসেল, বিজেএমসি, মুক্তিযোদ্ধা, রহমতগঞ্জ ও ফরাশগঞ্জ খেলবে চার গ্রুপে ভাগ হয়ে। এরপর কোয়ার্টার ফাইনাল, সেমিফাইনাল ও ফাইনাল। সোমবার অনুষ্ঠিত প্রফেশনাল লিগ কমিটির সভা সিদ্ধান্ত নিয়েছে ১১ জানুয়ারি স্বাধীনতা কাপের ড্র এবং পৃষ্ঠপোষক প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষরের।

আরআই/আইএইচএস/এমএস