বর্ণিল সাজে আসবেন ‘চ্যাম্পিয়ন আবাহনী’র সমর্থকরা

রফিকুল ইসলাম
রফিকুল ইসলাম , বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৬:৫১ পিএম, ১০ জানুয়ারি ২০১৮
বর্ণিল সাজে আসবেন ‘চ্যাম্পিয়ন আবাহনী’র সমর্থকরা

দুই আবাহনীর শেষ রাউন্ডের ম্যাচটি যদি হতো শিরোপা নির্ধারণীর তাহলে আগামীকালের সন্ধ্যাটা বাড়তি গুরুত্ব পেতো দর্শকের কাছে। কিন্তু বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে গত আসরের চ্যাম্পিয়ন ও রানার্সআপদের লড়াইটার আগে যে লেগে গেছে ‘গুরুত্বহীন’ শব্দটি!

শিরোপার দৌড় থেকে আগেই ছিটকে পড়া চট্টগ্রাম আবাহনী এবার দ্বিতীয় স্থানও ধরে রাখতে পারেনি। আবাহনী ষষ্ঠবারের মতো চ্যাম্পিয়ন হওয়া নিশ্চিত করেছে এক ম্যাচ আগেই। নিশ্চয়ই তারা চাইবে আজ শেষটাও রাঙিয়ে দিতে! রাতে চ্যাম্পিয়ন আবাহনীকে দেয়া হবে ট্রফি। এমন দিনে নিশ্চয়ই তারা হারতে চাইবে না।

শিরোপা জয় উদযাপনটা শেখ জামালকে হারিয়েই করেছে আবাহনী সমর্থকরা। আগামীকাল তাদের ট্রফি হাতে উল্লাসপর্ব। বেশ প্রস্তুতি নিয়েই পশ্চিম গ্যালারিতে জমায়েত হবে আবাহনী সমর্থকরা। ক্লাব থেকেই তাদের জন্য তৈরি করে দেয়া হয়েছে ‘চ্যাম্পিয়ন’ লেখা কয়েক হাজার আকাশী-হলুদ জার্সি।

ট্রফি নিতে তারা আসবে ঘোড়ার গাড়ি এবং ব্যান্ডপার্টি নিয়ে। আবাহনী ফুটবল দলের ম্যানেজার সত্যজিৎ দাস রুপু আশা করছেন, অন্যসব ম্যাচের চেয়ে ট্রফি নেয়ার দিন সমর্থক বেশি উপস্থিত থাকবে।

ট্রফি গ্রহণের ম্যাচে আবাহনীর জিতলে চট্টগ্রামের আবাহনীর তিনে থেকে লিগ শেষ করতে না পারার শঙ্কাও বাড়বে। গতবারের রানার্সআপরা নিশ্চয়ই চাইবে আবাহনীকে হারিয়ে তিনে থেকে লিগটা শেষ করতে; কিন্তু সে সামর্থ্য কী তাদের আছে?

সর্বশেষ চার ম্যাচে ১১ পয়েন্ট হারানো দলটির খেলোয়াড়রা মানসিকভাবে এতটাই ভেঙ্গে পড়েছে যে, তারা স্বাধীনতা কাপেও অংশ নিতে চাইছিল না। চিঠি দিয়েই চট্টলার দলটি প্রফেশনাল লিগ কমিটিকে জানিয়েছিল খেলবে না বলে। পরে অবশ্য ইউটার্ণ নিয়েছে- খেলতে যাচ্ছে স্বাধীনতা কাপের চ্যাম্পিয়নরা।

বৃহস্পতিবার শুরু হবে প্রিমিয়ার লিগের শেষ পর্ব। আবাহনী চ্যাম্পিয়ন, রানার্সআপ শেখ জামাল- লিগের তো আর কোনো আকর্ষণই নেই। দেখার শুধু একটাই- নেমে যাচ্ছে কোন দল। পুরনো ঢাকার দুই ক্লাব ফরাশগঞ্জ ও রহমতগঞ্জ আছে রেলিগেশন নামের তলোয়ারের নিচে। আজ শেখ জামালের কাছে হারলে গর্দানটা নেমে যাবে ফরাশগঞ্জের। জিতলেও তাকিয়ে থাকতে হবে সাইফ ও রহমতগঞ্জের ম্যাচের দিকে।

প্রিমিয়ার লিগের ১০ আসরের মধ্যে ৬বার চ্যাম্পিয়ন আবাহনী। আকাশী-হলুদ সমর্থকরা বৃহস্পতিবার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে আসবে আরেকবার ট্রফি হাতে নাচতে। একই রাতে ট্রফি পাবে রানার্সআপ শেষ জামালও। চ্যাম্পিয়ন ও রানার্সআপ দুটি ট্রফিই যাচ্ছে ধানমন্ডিতে। এরআগে একবার, ২০১৪ সালে দুই ট্রফিই যায় ধানমন্ডিতে। সেবার চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল শেখ জামাল, রানার্সআপ আবাহনী।

আরআই/আইএইচএস/এমএস