আবার এক ছাদের নিচে নারী ফুটবলাররা

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৯:৪৯ পিএম, ১০ জানুয়ারি ২০১৮
আবার এক ছাদের নিচে নারী ফুটবলাররা

ছুটি কাটিয়ে আবার এক ছাদের নিচে নারী ফুটবলাররা। জাতীয়, অনূর্ধ্ব-১৬ ও অনূর্ধ্ব-১৫ দলের মিশেলে নতুন করে শুরু হচ্ছে নারী ফুটবলারদের দীর্ঘমেয়াদী ক্যাম্প। সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর ক্যাম্পের মেয়েদের ১৫ দিনের ছুটি দিয়েছিল বাফুফে। ৩৫ ফুটবলার নিয়ে বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই অনুশীলনে নেমে পড়বেন প্রধান কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন।

নতুন বছরটা অনেক ব্যস্ততায় কাটবে সাবিনা, কৃষ্ণা, মারিয়াদের। মার্চে হংকংয়ের চারজাতি অনূর্ধ্ব-১৫ আমন্ত্রণমূলক প্রতিযোগিতায় খেলা হলে এ বছর ৮টি টুর্নামেন্ট মেয়েদের সামনে। সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ ছাড়িয়ে মেয়েদের জন্য বড় আসর এশিয়ান গেমস। যা ইন্দোনেশিয়ায় হবে আগস্ট-সেপ্টেম্বরে। এটিই হবে বাংলাদেশের মেয়েদের সবচেয়ে বড় আসরে অংশগ্রহণ। ৮ টুর্নামেন্টের বাইরেও চোখ আছে বাফুফের- তারা যে আগামী ফিফা নারী অনূর্ধ্ব-২০ বিশ্বকাপেও খেলতে চায়! সব কিছু মিলিয়ে মেয়েদের ফুটবলে একটা বড় মিশনই শুরু হলো বাংলাদেশের।

ভোরে বাফুফে ভবনে পৌঁছেছে পার্বত্য অঞ্চলের মেয়েরা। তারপর রংপুর ও ঠাকুরগাঁয়ের মেয়েরা যোগ দেন ক্যাম্পে। রাতে এসে পৌছানোর কথা সবচেয়ে বড় গ্রুপ ময়মনসিংয়ের মেয়েদের। অনূর্ধ্ব-১৬ দলের অধিনায়ক কৃষ্ণা রানী সরকার ও অনূর্ধ্ব-১৫ দলের অধিনায়ক মারিয়া মান্ডা তাদের ৭ সতীর্থকে নিয়ে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওয়ানা দিয়েছিলেন সকাল ১১টার দিকে। রাত ৮টায় মারিয়া মান্ডা জাগো নিউজকে জানান, তখনো তারা টঙ্গিতে আটকে আছে যানজটে।

যে ৩৫ ফুটবলার নিয়ে ক্যাম্প শুরু করছেন গোলাম রব্বানী ছোটন তাদের সঙ্গে যোগ হবেন আরো ৩ জন। এএসসি পরীক্ষার কারণে আপাতত ক্যাম্পের বাইরে আছেন মিশরাত জাহান মৌসুমী, ইসরতা জাহান রত্না ও সিরাত জাহান স্বপ্না। পরীক্ষার পর এ তিনজন যোগ দিয়ে পূর্ণতা আসবে মেয়েদের ক্যাম্পে।

আরআই/আইএইচএস/জেআইএম