গ্যালারিতে উচ্ছ্বাস, মাঠে হতাশা

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৭:৪৩ পিএম, ২৩ জানুয়ারি ২০১৮

মাঠের হারটা বাদ দিলে অন্যরকমই হলো সাইফ স্পোর্টিং ক্লাবের প্রথম আন্তর্জাতিক ম্যাচটি। দেশের ঐতিহ্যবাহী ক্লাবগুলোর যখন মাঠে দর্শক ফেরানো নিয়ে মাথাব্যথা নেই, সেখানে অনেক কিছু করে দেখালো নতুন দল সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব।

গ্যালারির ফাঁকা জায়গা ভরতে তাদের উদ্যোগ ছিল প্রশংসনীয়। দর্শকদের জন্য তাদের ছিল লোভনীয় পুরস্কারের অফার। তাতেই অন্তত হাজার আটেক দর্শক ঠাঁই নিয়েছিল বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের গ্যালারিতে।

দিন চারেক সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব প্রচার-প্রচারণা চালিয়েছে। মাইকিং করেছে, লিফলেট বিতরণ করেছে। মানুষকে খেলা দেখতে ডেকেছে বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে। মিষ্টি কথায় চিড়ে ভিজবে না বুঝে সাইফ দর্শকদের জন্য করে পুরস্কারের ব্যবস্থাও।

‘খেলা দেখো মাঠে এসে, ঘুরে আসো মালদ্বীপ থেকে’ লেখা লিফলেটের গায়ের নম্বর তিন জন ভাগ্যবানের সুযোগ করে দিয়েছে সাইফের সঙ্গে মালদ্বীপ যাওয়া-আসার। ম্যাচের বিরতির সময় হয় লটারি, ম্যাচ শেষে পুরস্কার দেয়া হয় বিজয়ীদের।

বিকেল ৩ টায় ম্যাচ শুরুর ঘন্টা দেড়েক আগেই দর্শকের ভিড় জমেছিল বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে। টিকিটও ছিল, তবে তা সৌজন্য। স্টেডিয়ামের প্রবেশদ্বারগুলোসহ বিভিন্ন স্থানে এ ম্যাচ নিয়ে ছোট ছোট তোরণও বানানো হয়েছিল। অস্থায়ী মঞ্চ করে দর্শকদের স্টেডিয়ামে ঢোকার আবেদনও চলছিল দুুপুরের পর থেকে।

হলুদ জার্সি গায়ে মাঠে খেলেছে সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব। একই জার্সি গায়ে হাজার হাজার দর্শক-সমর্থক মাতিয়ে রেখেছে গ্যালারি। তবে গ্যালারির সে উচ্ছ্বাস আর উচ্ছ্বাস থাকেনি ম্যাচ শেষে। ম্যাচে হারার পর মাঠের হতাশাটা ছড়িয়ে পড়ে দর্শকদের মধ্যেও। যে ম্যাচে অন্তত চার গোল পাওয়া উচিত ছিল স্বাগতিকদের, সে ম্যাচটি হারতে হয়েছে ডিফেন্স ও গোলরক্ষকের ব্যর্থতায় খাওয়া এক গোলে।

আরআই/এমএমআর/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :