সাড়ে তিন বছর পর ক্লাবগুলোর যুব ফুটবল টুর্নামেন্ট

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৮:৪৮ পিএম, ১৭ এপ্রিল ২০১৮
সাড়ে তিন বছর পর ক্লাবগুলোর যুব ফুটবল টুর্নামেন্ট

শুরু হয়েছিল ২০১৩ সালে। পরের বছরও হয়েছিল। কিন্তু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের ক্লাবগুলোর যুব ফুটবল টুর্নামেন্ট ফাইলবন্দী ছিল প্রায় সাড়ে ৩ বছর। অবশেষে টুর্নামেন্টটি আবারও শুরু হচ্ছে। তারচেয়ে ভালো খবর এই প্রথম প্রিমিয়ার লিগের সব ক্লাবই অংশ নিচ্ছে যুব টুর্নামেন্টে। আগামী ২৬ এপ্রিল বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে শুরু হবে ক্লাবগুলোর যুবাদের লড়াই।

প্রথম দুই আসরে গড়হাজির ছিল শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব। প্রিমিয়ার লিগের বাইলজে ক্লাবগুলোর যুব দল গঠন ও টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণ বাধ্যতামূলক হলেও খেলেনি শেখ জামাল। তবে তাদের টিকিটিও ছুঁতে পারেনি বাফুফে। এবার শেখ জামাল অংশ নেয়াটা বাফুফের জন্য স্বস্তির খবরই।

২০১৩ সালে হয়েছিল অনূর্ধ্ব-১৬ ও ২০১৪ সালে অনূর্ধ্ব-১৮ টুর্নামেন্ট। দুইবারই শিরোপা জিতেছে মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব। প্রিমিয়ার লিগে এখনো ট্রফির মুখ না দেখলেও ঐতিহ্যবাহী ক্লাবটি যুব টুর্নামেন্টে অপ্রতিরোধ্য। এবারও তারা বেশ আঁটঘাট বেধেই নামছে। বসে ছিল না অন্যরাও-কয়েকমাস ধরে উম্মুক্ত ট্রায়ালের মাধ্যমে দল গড়েছে ক্লাবগুলো।

প্রিমিয়ার লিগের ক্লাবগুলোর যুব দল গঠন ফিফার নির্দেশনা। এ জন্য তারা অর্থের যোগানও দিচ্ছে। এই টুর্নামেন্টের জন্য ফিফা দেবে ৪০ হাজার মার্কিন ডলার। প্রায় ৫০ লাখ টাকা বাজেটের এ টুর্নামেন্টে বাকি অর্থ যোগাবে ওয়ালটনসহ কয়েকটি প্রতিষ্ঠান।

মঙ্গলবার বাফুফে ভবনে টুর্নামেন্টের গ্রুপিং করা হয়েছে। ‘এ’ গ্রুপে পড়েছে-ব্রাদার্স ইউনিয়ন, শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র, সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব, ‘বি’ গ্রুপে-শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব, রহমতগঞ্জ এমএফএস, বিজেএমসি, ‘সি’ গ্রুপে-চট্টগ্রাম আবাহনী, আরামবাগ ক্রীড়া সংঘ, মোহামেডান এবং ‘ডি’ গ্রুপে-আবাহনী, মুক্তিযোদ্ধা ও ফরাশগঞ্জ।

আরআই/এমআর/এমএস