দ্বিতীয় রাউন্ডে পর্তুগালকেই প্রতিপক্ষ হিসেবে চান পুতিন

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০:৪০ পিএম, ২০ জুন ২০১৮ | আপডেট: ১০:৪১ পিএম, ২০ জুন ২০১৮

গ্রুপ পর্বের প্রথম দুই ম্যাচে জিতে দুর্দান্তভাবে নিজেদের বিশ্বকাপ যাত্রা শুরু করেছে স্বাগতিক রাশিয়া। সৌদি আরবকে ৫-০ এবং মোহামেদ সালাহর মিসরকে ৩-১ গোলে হারিয়ে প্রথম দল হিসেবে ইতিমধ্যেই দ্বিতীয় রাউন্ড নিশ্চিত করে ফেলেছে রাশিয়া। দলের এমন ধারাবাহিক পারফরমেন্সে দারুণ খুশি রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনও।

বিশ্বকাপ আয়োজনের সফলতা-ব্যর্থতা নিয়ে আলাপ করতে পর্তুগিজ প্রেসিডেন্ট মার্সেলো রেবেলো ডি সুজার সাথে আলোচনায় বসেন পুতিন। বলে রাখা ভাল, ডি সুজা এবং ভ্লাদিমির পুতিন খুব ভাল বন্ধুও বটে। বিশ্বকাপে এখনও পর্যন্ত সফলভাবে সব আয়োজন সম্পন্ন করার জন্য পুতিনকে ধন্যবাদ জানান পর্তুগিজ প্রেসিডেন্ট।

তবে রাশিয়া আর পর্তুগাল দল গ্রুপ পর্বে যেভাবে খেলে যাচ্ছে, হয়ত দ্বিতীয় রাউন্ডে দেখা হয়ে যেতে পারে এই দুই দেশের। যদি দুই দল পরস্পর মুখোমুখি হয়েই যায়, তাহলে কি দু’দেশের দুই প্রেসিডেন্টের সম্পর্কে ভাটা পড়বে কিংবা দুই দেশের বন্ধুত্বে কি কোনোরূপ বিরূপ প্রভাব পড়বে?

এমন প্রশ্নের উত্তরে দু’জনেই বেশ সাবলীলভাবেই নিজেদের মত দিয়েছেন। খেলার কারণে যে তাদের মাঝে বা দুই দেশের বন্ধুত্বের মধ্যে কোন পরিবর্তন আসবে না তা নিশ্চিত করেন পর্তুগাল এবং রাশিয়া- দুই দেশের রাষ্ট্রপতি।

সেটা প্রমান করতেই দ্বিতীয় রাউন্ডে পর্তুগালকেই নিজেদের প্রতিপক্ষ হিসেবে চাইলেন পুতিন। তিনি বলেন, ‘যদি গ্রুপ পর্বের সব কিছু ঠিকমত এগোয়, তবে দেখা যাচ্ছে আমরা পরের পর্বেই মুখোমুখি হতে পারি। দু’দেশের সম্পর্ক আরও মজবুত ও জোরালো করতে অবশ্যই আমারা পরস্পরের বিপক্ষে খেলতে চাই। টুর্নামেন্টের ফল যাই হোক না কেন, আমাদের মাঝে সম্পর্কের কোন পরিবর্তন হবে না। খেলা এমন একটি মাধ্যম যা দুটি দেশ আর তার মানুষদেরকে এক করে দেয়।’

এসএস/আইএইচএস/এমআরএম