রোমাঞ্চ ছড়ানো ম্যাচে ১-১ সমতায় সৌদি আরব-মিসর

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:০২ পিএম, ২৫ জুন ২০১৮

প্রথম দুই ম্যাচ হেরে বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নিয়েছে দু’দলই। তাই এই ম্যাচটি নিয়মরক্ষার ম্যাচ হয়ে দাঁড়িয়েছে। গুরুত্বহীন এই ম্যাচেও ছিল উত্তেজনার ছাপ। দ্বিতীয় ম্যাচের মত এ ম্যাচেও মিসরের হয়ে একমাত্র গোলটি করেন মোহামেদ সালাহ। কিন্তু সৌদিও কম যায়নি। প্রথমার্ধের শেষ সময়ে পেনাল্টি থেকে গোল দিয়ে সৌদিকে সমতায় ফেরান আল ফারাজ।

১২ মিনিটের সময় ম্যাচের প্রথম সুযোগটি মিস করেন সৌদি ফুটবলার আলো দাওসারি। দূরপাল্লার লক্ষ্য ভ্রষ্ট শটে গোল বঞ্চিত হয় এশিয়ার দেশটি। ১৪ মিনিটে আরো একবার দূর থেকে শট নেন তিনি। এবারও ফলাফল একই। ম্যাচের ২২ মিনিটে সৌদি রক্ষণভাগ ভাঙ্গেন সালাহ।

আলো সাঈদের দূর থেকে দেওয়া ক্রসে গোলরক্ষকের মাথার উপর দিয়ে চিপ শটে দারুণ গোল করেন সালাহ। বিশ্বকাপে এটি তার দ্বিতীয় গোল। এই গোলের ঠিক দু মিনিট পর একই রকম জায়গা থেকে গোলের সুযোগ পেয়েছিলেন সালাহ কিন্তু এবার তিনি গোলমুখে না মেরে বাইরে শট মারেন।

৩৩ ও ৩৪ মিনিটে দুবার এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ পেয়েছিল মিসর। কিন্তু ত্রেজেগেত দুবারই গোলমুখের একদম সামনে এসে বাইরে শট করেন। পিছিয়ে ছিল না সৌদি আরবও। ৩৭ মিনিট আলো ফারাজের বা-পায়ের শট গোললাইন থেকে ব্লক করেন মিসরের রক্ষণভাগের ফুটবলার।

প্রথমার্ধ শেষ হওয়ার ৪ মিনিট আগে পেনাল্টি পায় সৌদি আরব। ডি বক্সের ভেতর আলো ফাতহির হ্যান্ডবলে পেনাল্টির সিদ্ধান্ত দেন রেফারি। কিন্তু স্পট কিক থেকে গোল করতে ব্যর্থ হন সৌদি আরবের আলো মুওয়ালাদ। ৪৫ বছর বয়স্ক মিসরের গোলরক্ষক এল হাদারি দারুণভাবে সেভ করেন মুওয়ালাদের শট। কিন্তু তখনও প্রথমার্ধের অনেক রঙ বাকি ছিল।

অতিরিক্ত সময়ের দুই মিনিটের মাথায় ম্যাচে দ্বিতীয়বার পেনাল্টি পায় সৌদি আরব। মুওয়ালাদকে ডি বক্সের ভেতর গাবর হাত টেনে ফেলে দিলে রেফারি পেনাল্টির সিদ্ধান্ত দেন। ভিডিও এসিস্ট্যান্ট রেফারির সহায়তা নিয়েও রেফারি সেই পেনাল্টিকেই বহাল রাখেন। স্পট কিক থেকে সালমান আল ফারাজ সৌদিদের হয়ে বিশ্বকাপে প্রথম গোলটি করেন। ১-১ সমতায় থেকেই বিরতিতে যায় দু’দল।

আরআর/আরআইপি