কাতারের ক্লাবকে হারিয়ে চাঙা জেমির শিষ্যরা

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০১:৩৯ পিএম, ১৬ মার্চ ২০১৯

প্রতিপক্ষ হোক না ক্লাব দল, ক্লাবটি যখন কাতারের শীর্ষ পর্যায়ের (স্টার লিগ) লিগের আল শাহানিয়া এবং খেলাটা যখন তাদেরই মাঠে তখন দলটিকে বেশ সমীহ করেই মাঠে নেমেছিল বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-২৩ ফুটবল দল।

লড়াইও হলো হাড্ডাহাড্ডি। ম্যাচ শেষে জয়ী দলের নাম বাংলাদেশ। কিন্তু ৯০ মিনিট তুমুল লড়াই হলো দোহার মাটিতে।

শুক্রবার ম্যাচটি যখন শেষ হয়েছে তখন বাংলাদেশে গভীর রাত। মধ্যপ্রাচ্যের দেশটি থেকে তাই জয়ের খবরটা দ্রুত ছড়ায়নি লাল-সবুজের দেশে। সকালের সূর্য্য হাসার পর থেকেই খবরটি নিয়েছেন অনেকে। কাতারের ক্লাবকে হারিয়েছে জেমি ডে’র শিষ্যরা।

১-০ গোলে জয়। কাঙ্ক্ষিত গোলটি এসেছে ৮৫ মিনিটে। স্বাভাবিকভাবেই সবার কৌতূহল মূল্যবান গোলটি করলেন কে? মতিন মিয়া, মাহবুবুর রহমান সুফিল, বিপলু আহমেদ কিংবা মাসুক মিয়া জনি নন, গোলটি করেছেন বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের নতুন দল নোফেল স্পোর্টিং ক্লাবের মিডফিল্ডার খন্দকার আশরাফুল ইসলাম।

কাতারের এ ক্লাবটির বিরুদ্ধে বাংলাদেশ অলিম্পিক দলের ম্যাচটি বাহরাইনের প্রস্তুতি। ২২ মার্চ সেখানে শুরু হবে এএফসি অনূর্ধ্ব-২৩ চ্যাম্পিয়নশিপের বাছাই পর্ব। তার আগে দোহায় ১০ দিনের বিশেষ কন্ডিশনিং ক্যাম্প করছে যুব দল। তার অংশ হিসেবেই এ প্রস্তুতি ম্যাচ।

কাতার যাওয়ার বাংলাদেশ হারিয়ে এসেছে কম্বোডিয়াকে। যে জাতীয় দলে ছিলেন এই অলিম্পিক দলের ১১ জন। তাই জেমির জন্য যুব দলের প্রস্তুতি সারার কাজটি সহজই হচ্ছে। আর বাহরাইন যাওয়ার আগে এ জয়টিও টনিক হিসেবে কাজ করবে এএফসি চ্যাম্পিয়নশিপে।

আরআই/এসএএস/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :