৯ গোলের রোমাঞ্চকর ম্যাচে আরামবাগের জয়

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৮:১০ পিএম, ২০ জুলাই ২০১৯

রহমতগঞ্জের জন্য ম্যাচটি ছিল খুবই গুরুত্বপূর্ণ। জিততে না পারুক, আরামবাগের কাছ থেকে একটি পয়েন্ট ছিনিয়ে আনতে পারলেও সেটা তাদের অবনমন এড়ানোর লড়াইয়ে যোগ হতো জ্বালানি হিসেবে।

ময়মনসিংহের রফিক উদ্দিন ভুঁইয়া স্টেডিয়ামে সে সম্ভাবনা তৈরিও করেছিল পুরনো ঢাকার ক্লাবটি। প্রথমার্ধে ২-১ গোলে এগিয়ে থেকে মহা মূল্যবান পয়েন্ট পাওয়ার আশা জেগেছিল তাদের। তবে শেষ পর্যন্ত দশম হার নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয়েছে তাদের।

শনিবার ময়মনসিংহের দর্শকরা প্রাণভরে দেখেছেন গোল। একটি দুটি নয়, ৯টি। এর মধ্যে ৬ গোল দিয়ে জয়ী দল আরামবাগ। অনেক লড়াইয়ের পরও ৬-৩ ব্যবধানে হার এখনো অবনমন অঞ্চলে থাকা রহমতগঞ্জের।

১৬ মিনিটে নাইজেরিয়ান ম্যাথু চিনেদুর গোলে এগিয়ে যায় আরামবাগ। কিন্তু গোল খেয়ে যেন তেঁতে ওঠে রহমতগঞ্জ। ২৮ মিনিটে কঙ্গোর সিয়ো জুনাপিও এবং ৪১ মিনিটে সোহেল রানা গোল করলে ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় রহমতগঞ্জ।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকেই রহমতগঞ্জের রক্ষণে ঝড় বইয়ে দিতে থাকে মারুফুল হকের দল। ৪৭ মিনিটে চিনেদু গোল করে সমতা আনেন। তারপর রীতিমতো গোল উৎসব স্বাগতিক দলের।

ক্যামেরুনের পল এমিল ৫৪ মিনিটে এবং জালাল মিয়া ৬৭ মিনিটে গোল করে ম্যাচ থেকে ছিটকে দেন রহমতগঞ্জকে। ৭৬ মিনিটে উজবেকিস্তানের বাবাখানভ ও পরের মিনিটে পল এমিলি গোল করলে ব্যবধান ৬-২ হয় আরামবাগের। ৮৬ মিনিটে জুনাপিও পেনাল্টি থেকে গোল করলে রহমতগঞ্জের হারের ব্যবধানটাই কমে।

২২ ম্যাচে এটি নবম জয় আরামবাগের। ৩০ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের পঞ্চম স্থানে মারুফুল হকের দল। আর ২১ ম্যাচে দশম হারে ১৯ পয়েন্ট নিয়ে দশম স্থানে রহমতগঞ্জ।

আরআই/এমএমআর/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :