ফিরেছেন ফুটবলাররা, পরবর্তী পরিকল্পনা তৈরিতে বসছে বাফুফে

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৭:০৭ পিএম, ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯

আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে হার দিয়ে কাতার-২০২২ বিশ্বকাপ বাছাইয়ের দ্বিতীয় পর্ব শুরু করা জাতীয় ফুটবল দল বিকেলে ঢাকায় ফিরেছে। হাতে দীর্ঘ এক মাস। ১০ অক্টোবর দ্বিতীয় ম্যাচে প্রতিপক্ষ গ্রুপের সবচেয়ে শক্তিশালী দল কাতার। এশিয়ান চ্যাম্পিয়নদের বিরুদ্ধে প্রথমেই হোম ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। যারা প্রথম দুই ম্যাচ থেকে ৪ পয়েন্ট নিয়ে ‘ই’ গ্রুপের শীর্ষে।

কাতারের বিরুদ্ধে মাঠে নামার আগে জাতীয় দলের প্রস্তুতি কিভাবে হবে, সে পরিকল্পনা সাজাতে আগামীকাল (বৃস্পতিবার) সভায় বসছে বাফুফের ন্যাশনাল টিমস কমিটি। দ্বিতীয় ম্যাচ সামনে রেখে কবে ক্যাম্প শুরু হবে।

কোনো প্রস্তুতি ম্যাচ খেলানো হবে কিনা জামাল ভূঁইয়াদের, সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতেই আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে ম্যাচ শেষ হওয়ার ২৪ ঘন্টার মধ্যে সভায় বসছে ন্যাশনাল টিমস কমিটি। সভায় কোচ জেমি ডে থাকবেন। তার চাহিদা মতোই ফুটবল দলের প্রস্তুতির পরিকল্পনা তৈরি করবে বাফুফে।

মঙ্গলবার রাতে তাজিকিস্তানের দুশানবেতে আফগানিস্তানের কাছে ১ গোলের হারটা অনেকের চোখে স্বাভাবিক। কেউ কেউ অবশ্য উন্নতিও দেখছেন। কারণ, চার বছর আগে দুই দেশের আগের সাক্ষাতে আফগানিস্তান জিতেছিল ৪-০ গোলে। সেটিও ছিল নিরপেক্ষ ভেন্যুতে। ম্যাচটি হয়েছিল ভারতের কেরালায়।

ম্যাচে একচেটিয়া প্রাধান্য নিয়ে খেলেই জিতেছে আফগানিস্তান। তবে শেষ দিকে রেফারি নির্দয় না হলে এবং নাবিব নেওয়াজ জীবন সহজ সুযোগ কাজে লাগাতে পারলে এক পয়েন্ট নিয়েও ফিরতে পারতেন জামাল ভূঁইয়ারা।

ম্যাচটি নিয়ে বেশি গোল না খাওয়ার স্বস্তি যেমন আছে, তেমন আছে পয়েন্ট না পাওয়ার আক্ষেপও। বিকেলে ঢাকায় পা রেখে সেই আক্ষেপের কথা বেরিয়ে এসেছে দলের প্রধান স্ট্রাইকার নাবিব নেওয়াজ জীবনের কন্ঠ থেকে, ‘আমাকে যেভাবে ফেলে দেয়া হয়েছে, তা ছিল নিশ্চিত পেনাল্টি। পেনাল্টির আবেদন করেছিলাম। কিন্তু চীনের রেফারি সে আবেদন আমলে নেননি। কেউ কেউ আমাকে দোষ দিচ্ছেন। কিন্তু আমার কিছু করার ছিল না। বলে যাওয়ার আগেই পেছন থেকে ট্যাকেল করে আমাকে ফেলে দেয়া হয়েছে।’

খেলোয়াড়দের মধ্যে ম্যাচ নিয়ে আক্ষেপ ও হা-হুতাশ থাকলেও কোচ সবাইকে সেটা ভুলে যেতে বলেছেন। তবে ভুলতে বলেননি আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে যে ভুলত্রুটিগুলো হয়েছে সেগুলো। সেখান থেকে শিক্ষা নিতে বলেছেন জেমি ডে। যা পরের ম্যাচগুলোতে কাজ লাগবে মনে করেন এই বৃটিশ কোচ।

আরআই/এমএমআর/এমএস