‘নতুন মেসি’কে রেখেই দিলো স্পেন

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮:৪০ পিএম, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯

লিওনেল মেসিকে পারেনি, তবে এবার ‘নতুন মেসি’কে নিজেদের কাছে রেখে দিতে সক্ষম হলো স্পেন। শুক্রবারই বার্সেলোনার নতুন তারকা, ‘আগামী দিনের মেসি’ হিসেবে স্বীকৃতি পেয়ে যাওয়া আনসু ফাতিকে নাগরিকত্ব দিয়েছে স্পেন। এরপরই লা রোজাদের হয়ে খেলার জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়ে গেছেন তিনি।

মাত্র ১৬ বছর বয়সেই লা লিগায় অভিষেক হয়েছে আফ্রিকান ফুটবলার আনসু ফাতি’র। গিনি বিসাউয়ে জন্ম নেয়া এই ফুটবলার যদিও ৬ বছর বয়স থেকেই বাবার সঙ্গে স্পেনে বসবাস করে আসছিলেন এবং ১০ বছর বয়সেই ভর্তি হয়ে যান বার্সার ফুটবলার তৈরির কারখানা, লা মাসিয়ায়।

৬ বছর ফুটবল শেখার পর অবশেষে সিনিয়র ক্যারিয়ার শুরু হয়ে গেলো কৃষ্ণবর্ণের ছেলেটির। মাদ্রিদ ভিত্তিক দৈনিক মার্কা লিখেছিল, ‘দ্য লেটেস্ট জুয়েল অব বার্সা’- নামে। তার খেলার স্টাইল এবং কলা-কৌশল দেখে সবাই তাকে বার্সার আগামী দিনের মেসি হিসেবেই অভিহিত করতে শুরু করেছে।

বার্সার হয়ে লা লিগায় অভিষেকের পর থেকেই অবশ্য সবার নজর কাড়তে শুরু করেছেন মাত্র ১৬ বছর বয়সী এই ফুটবলার। নিজে গোল করা কিংবা অ্যাসিস্ট- সব কিছুতেই অবদান রয়েছে তার। তরুণ এই ফুটবলারকে নাগরিকত্ব দিয়ে নিজেদের দেশে রেখে দেয়ার চেষ্টা শুরু করে স্প্যানিশ ফুটবল ফেডারেশন।

অবশেষে সেই চেষ্টায় সফল হয়েছে তারা। স্পেনের নাগরিকত্ব নেয়ার ব্যাপারে রাজি হয় আনসু ফাতির বাবা। শেষ পর্যন্ত গত শুক্রবারই স্প্যানিশ নাগরিকত্ব গ্রহণ করেন। তার হাতে নাগরিকত্বের কাগজ-পত্র তুলে দেয় স্পেন ফুটবল ফেডারেশন।

স্পেনের নাগরিকত্ব গ্রহণের পর আনসু ফাতি এখন দেশটির জাতীয় দলের জার্সি গায়ে তোলার অপেক্ষায়। বয়স যা, তাতে বয়সভিত্তিক দলগুলোর হয়েও খেলার মত অবস্থায় রয়েছেন তিনি। আগামী মাসেই ব্রাজিলে অনুষ্ঠিতব্য অনুর্ধ্ব-১৭ বিশ্বকাপে স্পেনের হয়ে খেলবেন তিনি।

স্পেনের কাউন্সিল অব মিনিস্টার্স ফাতির নাগরিকত্বের বিষয়টা সম্পূর্ণ দেখভাল করেন। তিনিই নতুন পাসপোর্ট তুলে দেন আনসু ফাতির হাতে। ফাতিও এ সময় প্রতিশ্রুতি দেন স্পেনের হয়ে খেলার ব্যাপারে। নিজের দেশ গিনি বিসাউ এবং পর্তুগালের হয়ে খেলার সুযোগ ছিল ফাতির। কিন্তু এই দুই দেশের পরিবর্তে স্পেনের হয়ে খেলবেন এখন তিনি।

আইএইচএস/জেআইএম