শেষ হলো বাফুফে-পল স্মলি অধ্যায়

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৮:১৫ পিএম, ২০ অক্টোবর ২০১৯

চুক্তির দ্বিতীয় মেয়াদের এক বছর শেষ হওয়ার পর বাফুফের টেকনিক্যাল অ্যান্ড স্ট্র্যাটেজিক ডিরেক্টর পল থমাস স্মলির দাবি ছিল দীর্ঘ সময়ের জন্য বাংলাদেশ ফুটবল নিয়ে কাজ করার।

এ জন্য তিনি বাফুফের সঙ্গে দীর্ঘ মেয়াদী চুক্তির কথাও বলেছিলেন। পারফরম্যান্স বিবেচনায় বাফুফে সভাপতি কাজী মো. সালাউদ্দিনও ব্রিটিশ বংশোদ্ভূত এ অস্টেলিয়ানকে দীর্ঘ মেয়াদে রাখার পক্ষে ছিলেন। তিনি সিন্ধান্তও নিয়েছিলেন নতুন করে চার বছরের চুক্তি করতে।

কিন্তু পলের সঙ্গে সন্ধিটা আর সামনে এগিয়ে নিতে পারেননি কাজী সালাউদ্দিন। তারই ফেডারেশনের অনেকের আপত্তির মুখে বিচ্ছেদ হলো বাফুফে আর স্মলির বন্ধন। চুক্তির মেয়াদ না বাড়িয়ে আজ (রোববার) রাতেই ফিরে যাচ্ছেন ২০১৬ সাল থেকে বাংলাদেশের ফুটবলের দায়িত্ব পালন করা পল স্মলি।

পল স্মলির এ চলে যাওয়া দুই পক্ষের সম্মতির ভিত্তিতেই। আজ (রোববার) দুপুরের পর থেকে বেশ সময় পলের সঙ্গে আলোচনা করেছেন বাফুফে সভাপতি কাজী মো. সালাউদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক আবু নাঈম সোহাগ ও বাফুফের মহিলা কমিটির চেয়ারম্যান ও ফিফা কাউন্সিল মেম্বার মাহফুজা আক্তার কিরণ। তারপরই বাফুফে সভাপতি কাজী মো. সালাউদ্দিন পলকে পাশে বসিয়েই তাৎক্ষণিকভাবে মিডিয়া ব্রিফিংয়ে জানিয়ে দেন ‘পল পত্যাগ করেছেন। রাতেই চলে যাচ্ছেন।’

কেন যাচ্ছেন পল। এ প্রশ্নের জবাবে এ অস্ট্রেলিয়ান বলেছেন, ‘আমি তিন বছর বাংলাদেশ ফুটবল নিয়ে কাজ করেছি। সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ অনেকের সহয়োগিতাও পেয়েছি। এখন ব্যক্তিগত কারণেই আমি আর চুক্তি বাড়াচ্ছি না। আমি ক্যারিয়ারে পরিবর্তন আনতেই এ সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

বাফুফে সভাপতি কাজী মো. সালাউদ্দিন পলের এ চলে যাওয়াকে দুঃখজনক হিসেবে উল্লেখ করে বলেন, ‘পল আমাদের ফুটবলে তিন বছর অনেক কাজ করেছেন। জাতীয় দলগুলোর কোচ নিয়োগের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন। তার কারণেই আমাদের মেয়েদের ফুটবলে অভাবনীয় উন্নতি হয়েছে। মেয়েরা যে বিশ্বকাপ বাছাইয়ে খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছিল তার পেছনে পলের অনেক অবদান ছিল। আশা করি, পলের সঙ্গে ভবিষ্যতে কাজ করতে পারবো।’

আরআই/আইএইচএস/এমএস