‘মেসি-সুয়ারেজ : ইসরায়েলে গিয়ে তোমরা খেলো না’

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:০২ পিএম, ১৩ নভেম্বর ২০১৯

বিশ্বকাপে আগে ইসরায়েলের মাটিতে আর্জেন্টিনার প্রস্তুতি ম্যাচ নিয়ে তুমুল আলোচনা। সারা বিশ্বের শান্তিকামী মানুষের তুমুল প্রতিবাদের মুখে শেষ পর্যন্ত আর্জেন্টিনা ইসরায়েলের মাটিতে গিয়ে প্রস্তুতি ম্যাচটি বাতিল ঘোষণা করে।

কিন্তু ইসরায়েল নিজেদের দেশকে শান্তিকামী হিসেবে প্রতিষ্ঠা করার যে নিরন্তর প্রচেষ্টা চালাচ্ছে তারই অংশ হিসেবে তেলবাবিবে আবারও মেসিদের নিয়ে একটি আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচের আয়োজন করছে তারা। তবে এবার মেসিদের প্রতিপক্ষ ইসরায়েল নিজেরা নয়। লুইস সুয়ারেজের উরুগুয়ে।

১৮ নভেম্বর, সোমবার তেলবাবিবে এই ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। যেখানে আর্জেন্টিনার হয়ে মেসি-আগুয়েরো থেকে শুরু করে খেলবেন সব তারকা ফুটবলাররা। উরুগুয়ে দলের হয়েও খেলবেন লুইস সুয়ারেজদের মত তারকারাও। অর্থ্যাৎ বিশ্বের দৃষ্টি নিজেদের দেশে নিবদ্ধ করার জন্য ইসরায়েল সব ধরনের চেষ্টাই করে যাচ্ছে।

কিন্তু এই ম্যাচটিই আবার পড়ে গেছে তুমুল সমালোচনার মুখে। বিশেষ করে বিশ্বের শান্তিকামী মানুষরা চাচ্ছে না মেসি-সুয়ারেজদের মত ফুটবলাররা ইসরায়েলের মত একটি সন্ত্রাসী রাষ্ট্রে গিয়ে খেলুক। এ কারণে চারদিক থেকেই তারা মেসিদের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছেন, যেন তারা ইসরায়েলে গিয়ে না খেলেন।

ফিলিস্তিনিদের ওপর প্রতিনিয়ত যে পরিমাণে নির্যাতনের স্টিম রোলার চালাচ্ছে ইসরায়েল, তাতে করে শান্তিকামী মানুষরা প্রতিবাদমুখর হবে, এটাই স্বাভাবিক। গত শুক্রবারই বার্সেলোনার হোম ভেন্যু ন্যু ক্যাম্পের বাইরে প্রতিবাদকারীরা ব্যানার-প্লেকার্ড নিয়ে স্লোগান দিয়েছে মেসি-সুয়ারেজের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন, ‘সেখানে (ইসরায়েলে) না যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিতে এখনও যথেষ্ট সময় হাতে আছে তোমাদের। প্লিজ, তোমরা সেখানে যেও না।’

প্রতিবাদকারীরা প্রশ্ন ছুঁড়ে দেন, ‘আপনি কি জাতিগত বিদ্বেষে ভরপুর দক্ষিণ আফ্রিকায় খেলতে যাওয়ার চিন্তাও করতে পারবেন? দয়া করে আপনারা তাদেরকে (ইসরায়েলকে) যুদ্ধাপরাধ, হত্যা-নির্যাতন, ধর্ষণকে ঢেকে দেয়ার জন্য আয়োজিত ফুটবল ম্যাচ খেলতে যাবেন না। এই ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে গাজার একেবারে কাছে। যেখানে প্রতিনিয়ত ফুটবলারের পায়ে শট করা হয়। আপনারা কি এমন একটি অন্যায়ের সঙ্গে নিজেকে জড়িয়ে নেবেন?’

রাশিয়া বিশ্বকাপের আগে ফিলিস্তিনি ফুটবল কর্তৃপক্ষের আহ্বান এবং চারদিকে তুমুল বিরোধীতার কারণে শেষ পর্যন্ত ইসরায়েলের বিপক্ষে ম্যাচটি বাতিল করে আর্জেন্টিনা।

আইএইচএস/এমকেএইচ