দর্শক উচ্ছৃঙ্খলায় বাফুফেকে ফিফার জরিমানা

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৪:৪২ পিএম, ০১ জানুয়ারি ২০২০

নতুন বছরের প্রথম দিনই দুঃসংবাদ বাংলাদেশ ফুটবলের জন্য। তবে দুঃসংবাদটা এসেছে ফুটবলের কোনো পারফরম্যান্সের কারণে নয়, বাংলাদেশের দর্শকদের উচ্ছৃঙ্খল আচরণের জন্য। ফিফা এ কারণে বাংলাদেশকে জরিমানা করেছে ১৫ হাজার সুইস ফ্রাঁ।

গত ১০ অক্টোবর বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের গ্যালারি ভরে দিয়েছিল দর্শক। উপলক্ষ ছিল বাংলাদেশ ও কাতারের মধ্যকার বিশ্বকাপ বাছাইয়ের ম্যাচ। গ্যালারিভরা দর্শক, মাঠে জামাল ভূঁইয়াদের দুর্দান্ত নৈপুণ্য। এখনো সবার মুখে মুখে সেই ম্যাচ।

যদিও শেষ সময়ের গোলে লাল-সবুজ জার্সিধারীদের হারের ব্যবধান হয়েছিল ২-০। তা না হলে তৃপ্তির ঢেঁকুরটা আরো বড়ই হতো বাফুফে কর্মকর্তাদের।

স্মরণীয় ওই ম্যাচের উল্টো দিকও আছে। মানে দর্শক উপস্থিতির মধুর বিড়ম্বনা। কিছু দর্শক গ্যালারির সামনের ফেন্সিংয়ে উঠে গিয়েছিল, যা ভালো চোখে দেখেনি ফিফা এবং সেটা ফিফার আইনবিরোধীও।

Football

তাই তো বাফুফের ওপর নেমে এসেছে শাস্তির খড়্গ। ফিফা জানিয়েছে, ওই ঘটনার জন্য বাফুফেকে জরিমানা গুনতে হবে ১৫ হাজার সুইস ফ্রাঁ। বাংলাদেশি মুদ্রায় যা ১৩ লাখ ২২ হাজার ১৩৮ টাকা।

ফিফার এ জরিমানার পাশাপাশি আছে আরেকটি নেতিবাচক খবর। এএফসি বাফুফেকে সতর্ক করেছে তাদের বেতনভুক্ত কোচরা দায়িত্বে গরহাজির থাকায়। বাফুফের যে ১৯ কোচ আছেন এএফসির বেতনভুক্ত, তাদের মধ্যে ১৫ জন নিয়মিত হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর দিতেন না কিংবা অনুপস্থিত থেকেছেন। তাদের মোট ২৮ হাজার মার্কিন ডলার বেতন কেটে নিয়ে বাফুফেকে সতর্ক করেছে এশিয়ার ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থাটি।

এর আগেও দর্শক উশৃঙ্খলতার কারণে জরিমানা গুনতে হয়েছিল বাফুফেকে। তাও বিশ্বকাপ বাছাইয়ের ম্যাচে। দর্শকরা আগামীতে আরো সচেতন না হলে বাফুফেকে জরিমানা তো গুনতেই হবে এবং আন্তর্জাতিক ম্যাচ আয়োজনেও সমস্যায় পড়তে হতে পারে বাংলাদেশকে।

আরআই/আইএইচএস/এমকেএইচ