ছোট্ট এক র‌্যালিতেই শেষ বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপের প্রচারণা

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৮:৫৬ পিএম, ১৪ জানুয়ারি ২০২০

২০১৮ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর সিলেট শহরে পা দিয়েই টের পাওয়া গিয়েছিল পরেরদিন এখানে শুরু হবে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ আন্তর্জাতিক ফুটবল টুর্নামেন্ট। মোড়েমোড়ে তোরণ, জেলা স্টেডিয়ামের আশপাশ যেন ফুটবল উৎসবে টইটুম্বুর ছিল সেবার। ব্যানার-ফেস্টুনেতো যেন ঢাকা পুরো সিলেট শহর। সিলেটে গ্রুপ পর্ব, কক্সবাজারে দুটি সেমিফাইনাল এবং ঢাকার বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে ফাইনাল। জাতির পিতার নামের টুর্নামেন্ট ঘিরে অন্যরকম উম্মানা ছিল মানুষের মধ্যে।

কিন্তু এ বছর যেন তার উল্টো। রাত পোহালে টুর্নামেন্ট শুরু; কিন্তু মানুষের মধ্যে কোনো আগ্রহই নেই। এমনকি টুর্নামেন্টের ভেন্যু বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম চত্বরে যারা ২৪ ঘণ্টা থাকেন, তারাও জানেন না বুধবার এখানে শুরু হবে জাতির জনকের নামের আন্তর্জাতিক ফুটবল টুর্নামেন্ট।

কোনো প্রচারণা নেই। রাজধানীর কোথাও বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ প্রচারণার কোনো কিছু চোখে পড়েনি। দুপুর ১২টার দিকে বাফুফে ভবন থেকে একটি র‌্যালি বের করেছিল বাফুফে। যা শেষ হয় বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে এসে। ছোট্ট এই র‌্যালি দিয়েই বাফুফে যেন শেষ করেছে জাতির পিতার নামের আন্তর্জাতিক ফুটবল টুর্নামেন্টের প্রচার-প্রাচরণা।

বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ হবে মুজিববর্ষের খেলাধুলার প্রথম আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট। তাই এর প্রচার-প্রচারণা আরো বেশি হওয়া উচিত ছিল বলে মনে করেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল এমপি।

আজ (মঙ্গলবার) তিনি বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়াম এলাকায় এসেছিলেন একটি কর্মসূচিতে। তখন স্টেডিয়ামের নিরব পরিবেশ দেখে হতাশ হয়েছেন। ‘এটা বঙ্গবন্ধুর নামের টুর্নামেন্ট। এর প্রচার-প্রচারণা হওয়া উচিত ছিল আরো বেশি। তাহলে আরো বেশি মানুষ জানতো টুর্নামেন্ট সম্পর্কে। তাতে দর্শকও বেশি হতো’- জাগো নিউজকে বলেছেন ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী।

প্রচার-প্রচারণা কম কেন? প্রশ্ন করতেই বাফুফে সাধারণ সম্পাদক মো. আবু নাঈম সোহাগের জবাব ‘প্রচারণা নেই, এ অভিযোগ ঠিক নয়। এইতো দুপুরে আমরা র‌্যালি করলাম। রাতের মধ্যে বাকি সব হয়ে যাবে। বাফুফে ভবন সাজানো হবে। বিলবোর্ড লেগে যাবে। সকালেই দেখতে পাবেন সবকিছু হয়ে গেছে।’

টুর্নামেন্ট উপলক্ষ্যে বাফুফে যে ৮টি উপ-কমিটি গঠন করেছে তার মধ্যে নেই প্রচার-প্রচারণা কমিটি। ‘আমরা আগেও প্রচার-প্রচারণা কমিটি করিনি। এ কাজগুলো করে থাকে স্পন্সর প্রতিষ্ঠান। তাদের সঙ্গে এ নিয়ে কথা হয়েছে। রাতের মধ্যে সব করে দেবে’- বলেছেন বাফুফে সাধারণ সম্পাদক।

আরআই/আইএইচএস/এমএস