করোনার মধ্যেই চলে গেলেন লিভারপুল স্ট্রাইকার রবিনসন

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:৫১ পিএম, ২৮ এপ্রিল ২০২০

করোনাভাইরাসের মধ্যেই পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করে পরপারে পাড়ি জমিয়েছেন লিভারপুলের কিংবদন্তী স্ট্রাইকার মাইকেল রবিনসন। তবে করোনাভাইরাসে নয়, তিনি মৃত্যুবরণ করেছেন ক্যান্সারে। আয়ারল্যান্ড ও লিভারপুলের সাবেক এই স্ট্রাইকারের বয়স হয়েছিল ৬১ বছর। মঙ্গলবার পরিবারের পক্ষ থেকে রবিনসনের মৃত্যুর খবর জানানো হয়।

ফুটবল থেকে অবসর নেয়ার পর ধারাভাষ্যকার হিসেবে যথেষ্ট সুনার অর্জন করেছিলেন রবিনসন। দুর্দান্ত মিডিয়া ক্যারিয়ারের পর স্পেনেই স্থায়ী বসবাস শুরু করেন সাবেক এই আইরিশ ফুটবলার। ২০১৮ সালে ক্যান্সার ধরা পড়ে রবিনসনের। আজ স্পেনে তার নিজের বাড়ি মারবেলাতে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন সাবেক লিভারপুল স্ট্রাইকার।

রবিনসনের পরিবারের পক্ষ থেকে টুইটারে তার মৃত্যুর খবর জানানো হয়। টুইটারে লেখা হয়েছে, ‘অত্যন্ত দুঃখের সঙ্গে জানাচ্ছি, মাইকেলের মৃত্যু হয়েছে। এটি আমাদেরকে কাছে গভীর শূন্যতা সৃষ্টি করছে। তবে আপনারা তাকে যে ভালোবাসা দেখিয়েছেন, সেই একই ভালোবাসায় পূর্ণ অসংখ্য স্মৃতিও রেখে গেছেন। এই মানুষটিকে এত সুখী করে তোলার জন্য আমরা চিরকাল আপনাদের প্রতি কৃতজ্ঞ থাকব। তিনি কখনও একা চলতেন না। আপনাদের ধন্যবাদ।’

Robinson

প্রিস্টন নর্থ এন্ড এবং ম্যানচেস্টার সিটি ছেড়ে রবিনসন অ্যানফিল্ডে যাওয়ার আগে ব্রাইটনের হয়ে ১৯৮৩ এফএ কাপের ফাইনালে অংশ নিয়েছিলেন; কিন্তু এরপর থেকে লিভারপুল সমর্থকদের নানা স্মরণীয় মুহূর্ত উপহার দিয়েছেন এই আইরিশ ফুটবলার। লিভারপুলের হয়ে অনেক ট্রফি জিতেছেন রবিনসন। পাশাপাশি নিজের দেশ আয়ারল্যান্ডের হয়ে ২৪টি ম্যাচে প্রতিনিধিত্ব করেছেন।

১৯৮৪ সালে লিগ, লিগ কাপ এবং ইউরোপিয়ান কাপ জেতা লিভারপুল দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন রবিনসন। তার মৃত্যুতে স্বভাবতই গভীর শোকপ্রকাশ করেছে লিভারপুল ক্লাব কর্তৃপক্ষ। ক্লাবের পক্ষ থেকে টুইটে শোক প্রকাশ করে লেখা হয়, ‘সাবেক খেলোয়াড় মাইকেল রবিনসন ৬১ বছর বয়সে মারা যাওয়ার কারণে আমরা গভীরভাবে দুঃখিত। লিভারপুল ফুটবল ক্লাবের প্রত্যেকের চিন্তাভাবনা মাইকেল পরিবার ও বন্ধুদের সঙ্গে এই দুঃসময়ে রয়েছে। শান্তিতে থাকুন মাইকেল।’

লিভারপুলের পরে তিনি কুইন্স পার্ক রেঞ্জার্সে (কিউপিআর) যোগ দিয়েছিলেন। স্প্যানিশ দল ওসাসুনায় খেলেছেন ক্যারিয়ার শেষ করার আগে। ১৯৮৯ সালে অবসর নেওয়ার পরে তিনি স্পেনেই থেকে যান। ধারাভাষ্যের পাশাপাশি অন্যতম বিশিষ্ট ফুটবল পন্ডিত হিসেবে সুনাম অর্জন করেন তিনি।

স্প্যানিশ দৈনিক এল পাইসের মতে, ‘রবিনসন ফুটবল বিশ্লেষণের পথে বৈপ্লবিক পরিবর্তন এনেছিলেন।’ পত্রিকায় লেখা হয়েছে, ‘তিনি হাজার হাজার দুপুরে ফুটবলের সঙ্গে আমাদের জড়িয়ে রেখেছিলেন, অবিশ্বাস্য উপাখ্যানগুলি উপহার দিয়েছিলেন। ফুটবলের বাইরে আমাদের জীবনযাত্রার পথ দেখিয়েছিলেন। আপনাকে ধন্যবাদ মাইকেল রবিনসন। আমরা আপনাকে মিস করব। আপনি কখনোই একা চলবেন না।’

আইএইচএস/

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]