ইনফ্যান্তিনোকে বরখাস্ত করা হোক : ব্ল্যাটার

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩:০৩ পিএম, ০২ আগস্ট ২০২০

দারুণ এক খেলা শুরু হয়ে গেলো ফুটবলের আন্তর্জাতিক অভিভাবক সংস্থা ফিফায়। দুর্নীতির অভিযোগে নিষিদ্ধ করা হয়েছিল সাবেক সভাপতি সেফ ব্ল্যাটারকে। সংস্থাটিতে শুদ্ধি অভিযানের অংশ হিসেবে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত করা হয় জিয়ান্নি ইনফ্যান্তিনোকে।

কিন্তু এবার সেই ইনফ্যান্তিনোর বিরুদ্ধেই উঠলো গুরুতর অভিযোগ। তার বিরুদ্ধে ওঠা দুর্নীতির অভিযোগের পরই মুখ খুলেছেন ফিফার বরখাস্ত হওয়া সাবেক প্রেসিডেন্ট সেফ ব্ল্যাটার। তিনি সরাসরি দাবি করলেন, ইনফ্যান্তিনোকে বরখাস্ত করা হোক এবং তাকে শাস্তি দেয়া হোক।

বর্তমান প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে মাঠে নেমে পড়লেন সাবেক প্রেসিডেন্ট! খেলাটা তাই জমে ওঠার পূর্বাভাস। দুর্নীতির অভিযোগে এরই মধ্যে ফিফা প্রেসিডেন্ট জিয়ান্নি ইনফান্তিনোর বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা দায়ের করা হয়ে গেছে।

কয়েক বছর আগে সাবেক প্রেসিডেন্ট সেফ ব্ল্যাটারও ফিফা থেকে বরখাস্ত হন সুইজারল্যান্ডে তার বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলার তদন্ত শুরু হওয়ার কারণে। ব্ল্যাটারের বিরুদ্ধে সব চেয়ে বড় অভিযোগ ছিল, উয়েফা প্রধান মিশেল প্লাতিনিকে অনৈতিকভাবে অর্থ পাইয়ে দেওয়ার।

প্রায় একইভাবে এখন অস্তিত্বের সংকট ইনফান্তিনোরও। এখনকার প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধেও সুইজারল্যান্ডেই শুরু হয়েছে ফৌজদারি তদন্ত এবং তার ঘোষিত শত্রু ও উত্তরসূরিকে প্রেসিডেন্ট পদ থেকে সরিয়ে দেওয়ার দাবি করে ব্ল্যাটার বিতর্কের আগুনে ঘি ঢেলে দিয়েছেন।

সংবাদমাধ্যমকে দেয়া এক বিবৃতিতে ব্ল্যাটার বলেছেন, ‘আমার কাছে ছবিটা পরিষ্কার। ফিফার এথিক্স কমিটিকে এবার ইনফান্তিনোর বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করতে হবে।’

ইনফ্যান্তিনোর বিরুদ্ধে মামলা করেছেন সুইজারল্যান্ডের স্পেশাল প্রসিকিউটর স্টেফান কেলার। ইনফ্যান্তিনোর সঙ্গে সুইস অ্যাটর্নি জেনারেল মাইকেল লোবারের এক গোপন বৈঠকে অনৈতিকতার সন্ধান পেয়েছেন বলে দাবি করছেন কেলার। সে কারণেই হঠাৎ ফৌজদারি মামলা ঠুকে দিয়েছেন তিনি।

আইএইচএস/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]