বাফুফের আবাসন অংশীদার ‘সারা রিসোর্ট’

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৭:১৯ পিএম, ০৬ আগস্ট ২০২০

রাজধানীর বাড্ডার বেরাইদে ফর্টিস গ্রুপের মাঠে একাডেমি করার মধ্যে দিয়ে প্রতিষ্ঠানটির সাথে সম্পর্ক তৈরি হয় বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে)। গত ডিসেম্বরে গাজীপুরে ফর্টিস গ্রুপের রিসোর্টে (সারা রিসোর্ট) বাফুফে বার্ষিক সাধারণ সভা করেছিল। এবার ওই রিসোর্টকে জাতীয় ফুটবল দলের আবাসন অংশীদার হিসেবে চুক্তি করলো বাফুফে।

বৃহস্পতিবার বাফুফে ভবনে দুই প্রতিষ্ঠানের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর হয়েছে। সারা রিসোর্ট বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের ‘এক্সক্লুসিভ অ্যাকোমেডমশন পার্টনার’ বাফুফে চুক্তিপত্রে স্বাক্ষর করেছেন ন্যাশনাল টিমস কমিটির চেয়ারম্যান, বাফুফে সহসভাপতি কাজী নাবিল আহমেদ। সারা রিসোর্টের পক্ষে স্বাক্ষর করেছেন প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক শাহাদাত হোসেন।

চুক্তির অধীনে বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলকে হেলথ ক্লাব, সুইমিং পুল, ইনডোর গেম্, ফুটবল গ্রাউন্ডসহ বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা প্রদান করবে সারা রিসোর্ট। বুধবার থেকে এই রিসোর্টে উঠতে শুরু করেছেন বিশ্বকাপ ও এশিয়ান কাপ বাছাইয়ের বাকি চার ম্যাচের ক্যাম্পে প্রাথমিকভাবে ডাক পাওয়া ফুটবলারা।

প্রথম দিন ৮ জন ফুটবলার উঠেছেন এ রিসোর্টে। বাকিরা উঠবেন বৃহস্পতি ও শনিবার। ক্যাম্পের জন্য ৩৬ ফুটবলার ডেকেছিলেন কোচ জেমি ডে। এর মধ্যে ৩ ফুটবলারকে ক্যাম্পে ওঠার অনুমতি দেয়নি তাদের ক্লাব বসুন্ধরা কিংস, চার ফুটবলার করোনায় আক্রান্ত এবং দুই ফুটবলার বিদেশে।

আর কারো করোনা পজিটিভ না হলে ২৭ জন নিয়ে আপতত অনুশীলন শুরু করবেন স্থানীয় দুই কোচ সৈয়দ গোলাম জিলানী ও মাসুদ পারভেজ কায়সার। জেমি ডে তার সহকারীকে নিয়ে আসবেন ১৭ আগস্ট।

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বাফুফে সভাপতি কাজী মো. সালাউদ্দিন, সহসভাপতি তাবিথ আউয়াল, সদস্য মো. আমিরুল ইসলাম বাবু, সাধারণ সম্পাদক মো. আবু নাইম সোহাগ এবং ফর্টিস গ্রুপের জেনারেল ম্যানেজার, (ব্রান্ডিং, সেলস্ অ্যান্ড রিজার্ভেশন) আহমদ রাকিব।

আরআই/এমএমআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]