নকআউটে ৮ গোল, ইতিহাসে প্রথম বায়ার্ন

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:০৭ এএম, ১৫ আগস্ট ২০২০

দুঃস্বপ্ন বললেও হয়তো কম বলা হবে! ম্যাচ শুরুর আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে একপ্রকার হার মেনেই নিয়েছিলেন বার্সেলোনার সমর্থকরা। তাই বলে এভাবে পরাজয়? খোদ বার্সেলোনার বিদ্বেষীরাও হয়তো কল্পনা করেননি সেটা। বার্সার মতো ক্লাবে এভাবে ধরাশায়ী হবে, তাও চ্যাম্পিয়নস লিগে নকআউট পর্বে! স্রেফ অবিশ্বাস্য।

এই অকল্পনীয়, অভূতপূর্ব কাজটি করে দেখিয়েছে জার্মান ক্লাব বায়ার্ন মিউনিখ। শুক্রবার রাতে পর্তুগালের রাজধানী লিসবনের এস্তাদিও দ্য লুইজে বার্সেলোনার কাজ ছিল যেন শুধু কিকঅফ করা। বারবার তাদের জালে গোল করবে বায়ার্ন আর কিকঅফ করবেন মেসি-সুয়ারেজরা; এটিই হয়ে গেল ম্যাচের নিয়মিত দৃশ্য।

আক্ষরিক অর্থেই একদম শুরু থেকেই শুরু হয় বায়ার্নের গোল উৎসব। যা চলেও একদম শেষ পর্যন্ত। ম্যাচের চতুর্থ মিনিট থেকে শুরু হয় গোলের ধারা, যা শেষ হয় ৮৯ মিনিটে গিয়ে। মাঝের সময়টাতে নিজেদের জালে একটিসহ আরও ৭টি গোল করে বায়ার্ন। বার্সাকে তারা হারায় ৮-২ গোলের বিশাল ব্যবধানে

বলা বাহুল্য, চ্যাম্পিয়নস লিগের ইতিহাসে নকআউট স্টেজে এক ম্যাচে ৮ গোলের রেকর্ড এটিই প্রথম। এতদিন ধরে ৭ গোলের রেকর্ড ছিল তিনটি। যার দুইটিই ছিল বায়ার্নের। এবার নিজেদের রেকর্ডকে আরও বাড়িয়ে ইতিহাসের প্রথম দল হিসেবে চ্যাম্পিয়নস লিগের নকআউট স্টেজে ৮ গোল দিল জার্মান ক্লাবটি।

সর্বপ্রথম ২০১১-১২ মৌসুমে শেষ ষোলোর এক ম্যাচে বাসেলকে ৭-০ গোলে হারিয়েছিল বায়ার্ন। একই রাউন্ডে একই ফল তারা পায় ২০১৪-১৫ মৌসুমে, শাখতার দোনেৎস্কের বিপক্ষে। আর সবশেষ ২০১৮-১৯ মৌসুমে শালকে ৪কের বিপক্ষে শেষ ষোলোর দ্বিতীয় লেগের ম্যাচে ৭-০ গোলে জিতেছিল ম্যানচেস্টার সিটি।

এ রেকর্ডগুলো ছাড়িয়ে বায়ার্ন জিতল ৮-২ ব্যবধানে। তাদের হয়ে জোড়া গোল করেছেন থমাস মুলার ও ফিলিপ কৌতিনহো। এছাড়া একটি করে গোলে নাম লিখিয়েছেন ইভান পেরিসিচ, সার্জি জিনাব্রি, জশুয়া কিমিচ ও রবার্ট লেভান্ডোস্কি। এছাড়া নিজেদের জালে একটি গোল করেছেন বায়ার্নের ডিফেন্ডার ডেভিড আলবা।

এসএএস/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]