সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত, আসছে অনেক পরিবর্তন : বার্সা প্রেসিডেন্ট

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১১:৩৭ এএম, ১৫ আগস্ট ২০২০

‘এত বড় অঘটন! রিখটার স্কেলে মাপতে গেলে এটি স্কেলের বাইরেই চলে যাবে’- ২০০৫ সালে বাংলাদেশ দল যখন অস্ট্রেলিয়াকে হারায়, তখন এভাবেই সেটির বর্ণনা দিচ্ছিলেন ম্যাচের ধারাভাষ্যকার। প্রায় ১৫ বছর পর উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগে যেনো ফিরে এলো অমনই এক মুহূর্ত। যেখানে অঘটন বা হতাশার মাত্রা মাপতে গেলে কোনো স্কেলেই তা ধরবে না।

শুক্রবার রাতে বার্সেলোনাকে নিয়ে রীতিমতো ছেলেখেলা করেছে বায়ার্ন। প্রথমার্ধে এক হালি ও দ্বিতীয়ার্ধে আরেক হালি- পুরো ম্যাচে মোট ৮টি গোল করেছে তারা, ভেঙেছে-গড়েছে অনেক নতুন রেকর্ড। এমনভাবে হারবে বার্সেলোনা, তা হয়তো ক্লাবটির চরমতম বিদ্বেষীও কখনও কল্পনা করেননি। কিন্তু এটিই সত্যি করে দেখিয়েছে বায়ার্ন মিউনিখ।

ব্যাখ্যাতীত এ পরাজয়ের পর বার্সেলোনার তারকা ডিফেন্ডার জেরার্ড পিকে বলেছেন, পুরো বার্সাকেই পরিবর্তন করা দরকার। একইসুরে কথা বলেছেন ক্লাব প্রেসিডেন্ট জোসেফ বার্তেমেউও। তিনি এক ধাপ এগিয়ে জানিয়েছেন, সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হয়ে গেছে, শিগগিরই অনেক পরিবর্তন আসবে।

ম্যাচশেষে মভিস্টারকে বার্তেমেউ বলেছেন, ‘এটা অনেক অনেক কঠিন রাত ছিল। বার্সা সমর্থক, সদস্য, খেলোয়াড় এবং সবার জন্য আমি দুঃখপ্রকাশ করছি। আমরা আমাদের চেনা রূপে ছিলাম না। আমি দুঃখিত।’

এসময়ে অনেক সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হয়ে গেছে জানিয়ে তিনি আরও বলেন, ‘বেশ কিছু সিদ্ধান্ত আমরা এরই মধ্যে নিয়ে ফেলেছি। আগামী কয়েকদিনের মধ্যে আরও কিছু সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। আগামী সপ্তাহ থেকে একের পর এক ঘোষণা দেয়া হবে। সবকিছু ঠাণ্ডা হওয়ার পর এসব করা ভালো হবে।’

‘আজকের (শুক্রবার রাত) দিনটা ছিল নিজেদের চেনার দিন। এমন এক পরাজয়ের পর সমর্থকদের উজ্জীবিত করার চেষ্টা করতে হবে। এটা সত্যিই হতাশাজনক ফল ছিল। আমি বায়ার্নকে অভিনন্দন জানাই। তারা সত্যিই অসাধারণ এক ম্যাচ খেলেছে এবং সেমিফাইনাল তাদেরই প্রাপ্য। আমরা সেই মানের খেলা দেখাতে পারিনি। আমাদের সমর্থক ও সদস্যদের কাছে আমি ক্ষমা চাইছি।’

গত কয়েকদিন ধরেই শোনা যাচ্ছে, হেড কোচ কিকে সেতিয়েনকে বরখাস্ত করবে বার্সেলোনা। এ বিষয়ে কিছু বলতে চাননি বার্তেমেউ, ‘কোচের ব্যাপারে কিছু না বলাই ভালো মনে করছি আমি। চ্যাম্পিয়নস লিগের আগেই অনেক সিদ্ধান্ত হয়ে গেছে। তবে আজকের দিনটা সেগুলো নিয়ে কথা বলার জন্য উপযুক্ত নয়।’

এসএএস/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]