মেসির মনের খবর আমি কী করে বলব : গার্দিওলা

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:৫১ পিএম, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০

লিওনেল মেসি আর বার্সেলোনায় থাকছেন না, নতুন ঠিকানা ম্যানচেস্টার সিটি- সমর্থকরা ধরে নিয়েছিলেন এমনটাই ঘটতে যাচ্ছে। কিন্তু শেষতক পুরনো ঘরেই বন্দি থাকতে হলো আর্জেন্টাইন জাদুকরকে। রিলিজ ক্লজ জটিলতায় ছাড়তে পারলেন না ন্যু ক্যাম্প।

বার্সেলোনার সঙ্গে মেসির চুক্তি আছে ২০২১ সাল পর্যন্ত। যদিও চুক্তিতে একটি কথা আছে যে, মেসি চাইলে মৌসুম শেষে ক্লাব ছাড়তে পারবেন। কিন্তু করোনার কারণে এবার জুনের বদলে লা লিগা শেষ হয়েছে আগস্টে।

এই ঝামেলাকে পুঁজি করে মেসিকে আটকে রেখেছে বার্সা। আর্জেন্টাইন জাদুকর হয়তো চাইলে আদালত পর্যন্ত যেতে পারতেন। কিন্তু যে ক্লাব তাকে শৈশব থেকে গড়ে তুলেছে, সেই ক্লাবের বিরুদ্ধে যাওয়ার মতো অকৃতজ্ঞতা দেখাতে চাননি বার্সা অধিনায়ক।

তবে আগামী বছর চুক্তির মেয়াদ শেষ হলে মেসি ফ্রি হয়ে যাবেন, তখন আর কোনও ক্লাবে যেতে বাধা থাকবে না। মেসিও যখন এবার ম্যানচেস্টার সিটিতে যেতে চাচ্ছিলেন, আগামী মৌসুমে সেখানেই তিনি যাবেন ধরে নেয়া যায়।

কিন্তু ম্যানচেস্টার সিটির কোচ পেপ গার্দিওলা পরিষ্কার করে বলতে পারলেন না, মেসি তাদের ক্লাবেই চলে আসছেন। বরং ‘এএফপি’র প্রতিবেদনে তার কথাগুলো যেভাবে এসেছে, তাতে বেশ ধোঁয়াশাই তৈরি হলো।

সোমবার ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে ম্যানচেস্টার সিটির প্রথম ম্যাচের আগে গার্দিওলা মেসির প্রসঙ্গে বলেন, ‘আমার কিছু ব্যাখ্যা দেয়ার প্রয়োজন নেই। আমার মনে হয়, মেসি তার অনুভূতি ভালোভাবেই জানিয়ে দিয়েছে। আমার নতুন কিছু যোগ করতে হবে না। সে (মেসি) বার্সেলোনার খেলোয়াড়, যে ক্লাবটিকে আমিও ভালোবাসি। এর বেশি কিছু বলতে পারব না।’

২০০৮ থেকে ২০১২ সাল পর্যন্ত চার বছর বার্সেলোনার সফল কোচ ছিলেন গার্দিওলা। তার অধীনে ১৪টি ট্রফি জিতেছে ক্লাবটি। এখনও স্প্যানিশ এই কোচ বার্সার প্রতি ভালোবাসা ভুলতে পারেননি, বোঝাই যাচ্ছে।

মেসির ভবিষ্যত নিয়ে কথা বলতে গিয়েও যেন নিজেকে নিরাপদ দূরত্বে রাখলেন গার্দিওলা। আগামী মৌসুমে আর্জেন্টাইন তারকা ম্যানচেস্টার সিটিতে যোগ দিচ্ছেন কি? এমন প্রশ্নে গার্দিওলার উত্তর, ‘আমি জানি না। কারও মনের খবর তো আর আমি বলতে পারব না।’

এমএমআর/এসএএস/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]