তর্কহীনভাবে সর্বকালের সেরা : লিনেকার

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:১৯ এএম, ২৬ নভেম্বর ২০২০

ইংল্যান্ডের বিপক্ষেই সেই অবিশ্বাস্য ম্যাচটি খেলেছিলেন দিয়েগো ম্যারাডোনা। প্রতিপক্ষ দলে ছিলেন গ্যারি লিনেকারের মতো কিংবদন্তি। দিয়েগো ম্যারাডোনাকে সেদিন লিনেকাররা আটকাতে পারেননি।

যার ফলে ১৯৮৬ মেক্সিকো বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে ম্যারাডোনার অসাধারণ ফুটবলের কাছে হেরে বিদায় নিতে হয়েছিল ইংল্যান্ডকে। সেই ম্যাচে অবশ্য লিনেকারও একটি গোল করেছিলেন। কিন্তু সেটা কোনো কাজে আসেনি।

মাঠের খেলায় শত্রু হতে পারেন। কিন্তু ইংলিশ কিংবদন্তি লিনেকারের কাছে একজন ফুটবল আদর্শ ছিলেন দিয়েগো ম্যারাডোনা। তার কাছে তর্কাতীতভাবেই সর্বকালের সেরা ফুটবলার আর্জেন্টাইন ফুটবল মহানায়ক ম্যারাডোনা।

১৯৮৬ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে স্বপ্নের গোল করেছিলেন আর্জেন্টিনা ১০ নম্বর জার্সিধারী এই তারকা। তার আগে পিটার শিলটনকে বোকা বানিয়ে হাত দিয়ে গোল করেছিলেন। পরে নিজেই বলেছিলেন, ওটা ছিল ‘ঈশ্বরের হাত’।

সেই ম্যাচে প্রতিপক্ষ গ্যারি লিনেকার ছিলেন ১০ নম্বর জার্সিধারী খেলোয়াড়। তিনিও গোল করেছিলেন ৮১ মিনিটে। যাতে শুধু ব্যবধানই কমেছিল।

ম্যারাডোনার মৃত্যুর খবরে ইংল্যান্ডের সাবেক এই স্ট্রাইকার টুইট করে বলেন, ‘আর্জেন্টিনা থেকে খবর এল ম্যারাডোনা আর নেই। আমার প্রজন্মের সেরা ফুটবলার। তর্কহীনভাবে সর্বকালের সেরা। অবশেষে ‘ঈশ্বরের হাতে’ নিজেকে সপে দিয়ে শান্তি হয়তো পাবে।’

তবে লিনেকারের এই টুইটে বেশকিছু ব্যবহারকারী সমালোচনা করে ছেড়েছেন তাকে। সমালোচকদের বক্তব্য হচ্ছে, এই সময় কোনোভাবেই ১৯৮৬ সালের সেই হ্যান্ডস অব গডের রেফারেন্স টেনে আনা মোটেও ঠিক হয়নি। একজন তো লিখেই দিয়েছেন, লিনেকারের উচিত, এই সময় ম্যারাডোনাকে অন্তত কিছু সম্মান দেখানোর!

জবাবে লিনেকার লিখে দিলেন, আশ্চর্য, এখানে অসম্মান দেখানোর কী দেখলেন আপনারা? আমি তো তাকে সম্মান দিয়েই কথা বলছি।

আইএইচএস/

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]