মেসির কাছে এক অদ্ভুত আবদার ম্যারাডোনার ছেলের

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩:৫৮ পিএম, ০৬ ডিসেম্বর ২০২০

দিয়েগো ম্যারাডোনার সম্মানে বহু আগেই ১০ নম্বর জার্সিটি তুলে রাখতে চেয়েছিল আর্জেন্টিনা ফুটবল দল। কিন্তু এ ব্যাপারে ফিফার কাছ থেকে অনুমতি মেলেনি তাদের। ২৫ নভেম্বর হঠাৎ হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে তার মৃত্যুর পর বিভিন্ন মহল থেকে দাবি উঠেছে, ম্যারাডোনার সম্মানে হলেও ১০ নম্বর জার্সিটাকে জাদুঘরে রাখা হোক।

এবার লিওনেল মেসির কাছে এক অদ্ভূত আদ্বার নিয়ে হাজির হলেন ম্যারাডোনার এক ছেলে। বললেন, মেসি যেন আর্জেন্টিনা এবং বার্সেলোনার ১০ নম্বর জার্সিটি ছেড়ে দেন।

ম্যারাডোনার এই ছেলের নামও দিয়েগো। জুনিয়র দিয়েগোকে উদ্ধৃত করে স্পেনের ক্রীড়া দৈনিক ‘মার্কা’ লিখেছে, ‘আমার বাবা যে সব দলে ১০ নম্বর জার্সি পরে খেলেছে, সেগুলোর সবকটা থেকেই এই জার্সি চিরকালের জন্য তুলে রাখা উচিত। তাই মেসির ক্ষেত্রেও বলব, তার পক্ষে আর্জেন্টিনা এবং বার্সেলোনার হয়ে ১০ নম্বর জার্সি পরে আর মাঠে নামা উচিত নয়। বাবার প্রতি যোগ্য সম্মান দেখানোর জন্যই আমি এই দাবি করছি।’

তবে মেসির প্রতিও যথেষ্ট শ্রদ্ধাশীল ম্যারাডোনার ছেলে। তিনি বলছেন, ‘ফুটবলের প্রতি মেসির যে দায়বদ্ধতা, সেটা আমাকে মুগ্ধ করেছে। আর বাবার মৃত্যুর পর মেসিকেও যেভাবে ভেঙে পড়তে দেখলাম, তাতে আমারও চোখে পানি এসে গিয়েছিল। এটা কখনও ভুলতে পারব না।’

jagonews24

আর্জেন্টিনার হয়ে ১০ নম্বর জার্সিতে ম্যারাডোনা ৯১ ম্যাচে ৩৪টি গোল করেছেন। জাতীয় দলের হয়ে মেসি ১৪২টি ম্যাচ খেলে ৭১টি গোল করেছেন। ১৯৮৬ বিশ্বকাপে ম্যারাডোনা প্রায় একাই চ্যাম্পিয়ন করেছিলেন আর্জেন্টিনাকে। মেসি এখনও পর্যন্ত একবারও দেশকে বিশ্বকাপ উপহার দিতে পারেননি।

যদিও বার্সেলোনার হয়ে মেসির সাফল্য অনেক বেশি। তিনি বার্সার জার্সিতে ৪৯৪ ম্যাচে গোল করেছেন ৪৪৮টি। বার্সার হয়ে ম্যারাডোনা খেলেছেন ৩৬টি ম্যাচ, গোল করেছেন ২২টি।

বার্সেলোনাকে এখনও পর্যন্ত মোট ১০বার স্প্যানিশ লা লিগায় চ্যাম্পিয়ন করেছেন মেসি। এছাড়াও রয়েছে ৪টি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ, ৬টি কোপা দেল রে, ৮টি সুপার কোপা, ৩টি উয়েফা সুপার কাপ, ৩টি ক্লাব ওয়ার্ল্ড কাপ জিতেছেন তিনি বার্সার জার্সি গায়ে। বার্সার হয়ে ম্যারাডোনা ১টি করে কোপা দেল রে, স্প্যানিশ কাপ ও সুপার কোপা জিতেছেন।

আইএইচএস/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]