বেশি আগে গেলে কিংসকে অনুশীলনের সুযোগ দেবে না মালদ্বীপ

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৪:২৯ পিএম, ২১ এপ্রিল ২০২১

এএফসি কাপের ম্যাচ খেলতে সপ্তাহখানেক আগেই মালদ্বীপ যেতে চেয়েছিল বসুন্ধরা কিংস। কোচ অস্কার ব্রুজনের লক্ষ্য ছিল সেখানকার পরিবেশের সঙ্গে তার শিষ্যদের খাপ খাইয়ে নেয়ার। কিন্তু মালদ্বীপে নির্ধারিত সময়ের আগে গেলে সেখানে প্রাকটিসের সুযোগ-সুবিধা দেয়া হবে না বলে জানিয়ে দেয়ার পর ম্যাচের মাত্র ৩তিন আগে মালে পৌঁছানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ চ্যাম্পিয়নরা।

১৪ মে আবাহনীর প্রথম ম্যাচ মালদ্বীপের দল মাজিয়া স্পোর্টস অ্যান্ড রিক্রিয়েশন ক্লাবের বিপক্ষে। দ্বিতীয় ম্যাচ ১৭ মে। প্রতিপক্ষ অজনা। ঘরোয়া প্রতিপক্ষ আবাহনী, ভারতের ব্যাঙ্গালুরু এফসি এবং মালদ্বীপের ঈগলসের একটি দলের বিপক্ষে ম্যাচটি খেলবে বসুন্ধরা কিংস। শেষ ম্যাচ ২০ মে ভারতের মোহনবাগানের বিপক্ষে।

বসুন্ধরা কিংসের সভাপতি ইমরুল হাসান বলেছেন, ‘আমরা ১১ মে মালদ্বীপ যাবো। ইচ্ছা ছিল আরো কয়েকদিন আগে যাওয়ার। কিন্তু আগে গেলে সেখানে অনুশীলনের সুযোগ দেবে না। তাহলে গিয়ে বসে থেকে লাভ কী? তার চেয়ে ভালো ওই কয়দিন ঢাকায় অনুশীলন করে দল যাবে।’

এএফসি কাপের জন্য বসুন্ধরা কিংস ২৬ জনের তালিকা জমা দিয়েছে এএফসিতে। তবে ক্লাবটির সভাপতি জানালেন, তারা অতিরিক্ত ৩ জন নিয়ে যাবেন। কারণ, ওখানে গিয়ে কোভিড টেস্ট করাতে হবে। কেউ পজিটিভ হলে বিকল্প রেডি রাখার জন্যই ২৯ জন নিয়ে যাবে ক্লাবটি।

দলের অন্যতম অভিজ্ঞ ডিফেন্ডার বিশ্বনাথ ঘোষ চোট পেয়ে বিশ্রামে আছেন। গত মাসে নেপালে অনুষ্ঠিত ত্রিদেশীয় টুর্নামেন্টে কিরগিজস্তানের বিপক্ষে ম্যাচে ব্যাথা পেয়েছেন তিনি। তারপর অনুশীলনে ফেরেননি। সামনের এই কয়দিনে ফিট হয়ে বিশ্বনাথের মাঠে ফেরার সম্ভাবনা কঠিন মনে করছেন ইমরুল হাসান।

‘আরো দুই সপ্তাহের মতো লাগবে বিশ্বনাথের। যদি ফিফটি পার্সেন্টও খেলার সুযোগ থাকে তাহলেও বিশ্বনাথকে নিয়ে যাবো। আগেই বলেছি, ওখানে করোনা পরীক্ষার পর কি হবে সেটা বলাতো মুশকিল। ঢাকা থেকে কোভিড-১৯ পরীক্ষা করিয়ে যেতে হবে। আমার মালদ্বীপ গিয়ে পরীক্ষা করাতে হবে’-বলছিলেন বুসন্ধরা কিংসের সভাপতি।

আরআই/আইএইচএস/

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]