ফাইনালে ম্যারাডোনাও আছেন মেসিদের সঙ্গে...

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:২০ এএম, ১১ জুলাই ২০২১

তার জাদুতেই সবশেষ ১৯৮৬ সালের বিশ্বকাপ জিতেছে আর্জেন্টিনা। সেটি প্রায় ৩৫ বছর আগের ঘটনা। এরপর ১৯৯১ ও ১৯৯৩ সালের কোপা আমেরিকাও জিতেছে আলবিসেলেস্তেরা। দিয়েগো ম্যারাডোনার জীবদ্দশায় আর্জেন্টিনার শেষ আন্তর্জাতিক শিরোপা ২৮ বছর আগের সেই কোপা আমেরিকাই।

এরপর ২০০৪, ২০০৭, ২০১৫ ও ২০১৬ সালের কোপা আমেরিকা ও ২০১৪ সালের ফিফা বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠেছে আর্জেন্টিনা। কিন্তু কোনোটিতেই নিজ দেশকে চ্যাম্পিয়ন হতে দেখেননি ম্যারাডোনা। প্রতিবার আশায় বুক বেঁধে পুড়তে হয়েছে হতাশার বেদনায়।

শেষমেশ দীর্ঘ ২৭ বছর আন্তর্জাতিক শিরোপা না জেতার আক্ষেপ সঙ্গী করেই গতবছরের নভেম্বরে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন ফুটবল ইতিহাসের অন্যতম সেরা ফুটবলার ম্যারাডোনার। তার মহাপ্রয়াণের পরের বছর আবারও কোপার ফাইনালে উঠেছে আর্জেন্টিনা। কিন্তু এবার তা দেখতে বেঁচে নেই ম্যারাডোনা।

তবে সশরীরে না থাকলেও, ম্যারাডোনার স্মৃতি নিয়ে ঠিকই মাঠে উপস্থিত হয়েছেন আর্জেন্টিনার সমর্থকরা। আয়োজক সংগঠন কনমেবলের অনুমতি সাপেক্ষে মারাকানার গ্যালারিতে মিলেছে দর্শক প্রবেশের অনুমতি। সেই সুযোগে এক সমর্থক আর্জেন্টিনার জার্সিতে বড় করে ম্যারাডোনার ছবি ছাপিয়ে উপস্থিত হয়েছেন মাঠে।

সেই ছবি নজর কেড়েছে কোপা আমেরিকা আয়োজকদেরও। কোপা আমেরিকার অফিসিয়াল টুইটার হ্যান্ডলারে সেই ছবিটি আপলোড করে লেখা হয়েছে, ‘স্বর্গ থেকে আমিও (ম্যারাডোনা) তোমাদের উৎসাহ দেবো।’ একইসঙ্গে আর্জেন্টিনার পতাকা ও ম্যারাডোনার জার্সি নম্বর ১০ জুড়ে দেয়া হয়েছে পোস্টে।

এদিকে ব্রাজিলের বিপক্ষে ফাইনাল ম্যাচটি খেলতে নেমেই রেকর্ড গড়েছেন আর্জেন্টিনা অধিনায়ক লিওনেল মেসি। কোপা আমেরিকার ইতিহাসে এখন সর্বোচ্চ ম্যাচ খেলা ফুটবলারের নাম লিওনেল মেসি। চলতি আসরের ফাইনালসহ মোট ৩৪টি ম্যাচ খেললেন তিনি।

তবে এ রেকর্ডে মেসি একা নন। ১৯৫৩ সালের চিলির গোলরক্ষক সার্জিও লিভিংস্টোন ঠিক ৩৪ ম্যাচ খেলার রেকর্ড গড়ে গেছেন। সে রেকর্ডেই এখন ভাগ বসালেন মেসি এবং হয়ে গেলেন কোপা আমেরিকায় সর্বোচ্চ ম্যাচ খেলা ফুটবলার।

এসএএস/এমআরআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]